‘রাধে’ রিলিজে ধুঁকতে থাকা বলিউডের কতটা উপকার হল, তাতে সন্দেহ থেকে যায়

অরিন্দম পাত্র

ভারতীয় বক্স অফিসের সুপারস্টার সালমান ‘ভাইজান’ যা কমিটমেন্ট করে থাকেন, তা যে নিছক ফিল্মি ডায়লগ নয় তার প্রমাণ দিলেন এবারের ঈদে অতিমারি আবহের মধ্যেও তাঁর গতবছর থেকে রিলিজ আটকে পড়ে থাকা ছবি ‘রাধে’ রিলিজ করে। কিন্তু তাতে গত দু’বছর থেকে ধুঁকতে থাকা ভারতীয় এন্টারটেইনমেন্ট ইন্ডাস্ট্রির কতটা উপকার হল, সেটা আপাতত বলা যাচ্ছে না, কারণ তাতে তাতে সন্দেহ থেকে যায়। কারণ সিনেমা হলের বন্ধ থাকার জন্য ছবিটি রিলিজ হল ওটিটি প্ল্যাটফর্ম জি-ফাইভে ও জিপ্লেক্স চ্যানেলে। আর সঙ্গে সঙ্গেই ১.৫ মিলিয়নের বেশি মানুষ লগইন করে ছবিটি দেখতে যাওয়ার ফলে জি-ফাইভের সার্ভার ক্র‍্যাশ করে যায়। এটা নিঃসন্দেহেই ঈদ আর সালমানের সেই পুরনো কানেকশন আর সাল্লু ভক্তদের ‘সালম্যানিয়া’র প্রমাণ দেয়! কিন্তু কতটা ভালো হল এই ছবি?

আরও পড়ুন: একটি লিটল ম্যাগাজিন ও মৃণাল সেন

এ ছবির গল্প নিয়ে কিছু বলতে চাই না, কারণ যাঁরা ২০১৭ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত কোরিয়ান ছবি ‘The Outlaws’ দেখেছেন, তাঁদের কাছে এই ছবির গল্প শুধু না প্রতিটি সিকোয়েন্স ও ফ্রেম চেনা মনে হবে। Kang Yoon-sung পরিচালিত এই ফিল্মের চিত্রনাট্য ও গল্প হুবহু অনুসরণ করে ফিল্ম সাজিয়েছেন প্রভুদেবা। শুধু মাঝেমধ্যে দু-একটা দৃশ্য ও তার মুখ্য পাত্রপাত্রীর অদলবদল ঘটিয়েছেন। আর গুঁজে দিয়েছেন তার ফাঁকে ফাঁকে গোটা তিনেক বিরক্তিকর গান। বলিউড সত্যি এই গান শোনানোর অভ্যাস আর ছাড়তে পারল না কোনো দিন! তাই ক্লাইম্যাক্স দৃশ্যের আগেই গুঁজে দেওয়া একটি গান বিরক্তির উদ্রেকই করে! রিমেক করাটা কোনো অপরাধ না, ২০০৯ সালে পুরী জগন্নাথের ‘পোকিরি’ ফিল্মের রিমেক ‘ওয়ান্টেড’ দিয়েই বক্স অফিসের বর্তমান বাজার দখল করেছিলেন ভাইজান, যার পরিচালকও ছিলেন প্রভুদেবাই। সেই ছবির সিকুয়েল ‘রাধে’র মেকিংয়ে কিন্তু কোনো মুনশিয়ানার ছাপ রাখতে পারলেন না প্রভু।

আরও পড়ুন: প্রসঙ্গ: সত্যজিৎ রায়ের দু’টি সিনেমা

অভিনয় নিয়ে কিছু বলার নেই। অরিজিনাল ছবি ডন লি-র জুতোয় পা গলিয়ে সাল্লুভাই নিজের স্টাইল আর সোয়্যাগ বজায় রেখেছেন যথারীতি যেটা তিনি বরাবর করে থাকেন। নায়িকা দিশা পাটানি এই ছবির সবচেয়ে ইরিটেতিং আইটেম। বাস্তবিক ন্যাকামি করা আর স্বল্পবসনা হয়ে নাচানাচি করা ছাড়া আর অন্য কিছু করার ছিল না তাঁর। ‘আউটলজ’-এর খ্যাচখ্যাচে পুলিশ অফিসার বসের ছোট্ট রোলটাকে বাড়িয়ে ও কমিক টাচ দিয়ে জ্যাকিদাদার জন্য একটা জায়গা বানিয়ে দিয়েছিলেন চিত্রনাট্যকার, যেটা না থাকলেও কিছু অসুবিধা হত না। অভিনয়ে একমাত্র আশার সলতে জ্বালাতে পারতেন যিনি, সেই রণদীপ হুডা হতাশা জাগিয়েছেন শুধু। আসল ছবির খলনায়কের নৃশংসতা ও অভিনয়ের ধারেকাছেও যেতে পারেননি তিনি। ছবির মিউজিক নিয়ে আগেই বলেছি, অতীব লাউড আর কোনো গানই মনে রাখার মতো না!

আরও পড়ুন: রোগ এবং রোগমুক্তির পথ দেখিয়েছিলেন সত্যজিৎ

ছবিটি সম্পূর্ণ স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে মুক্তি পেলেও অন্তত দেড়শো কোটি ইনকাম করতই, ঠিক যেরকম ‘রেস থ্রি’ করেছিল। অবশ্য তার জন্য আমজনতাও কম দায়ী নন! তাই বক্স অফিসের কিংয়ের এইসব নিয়ে ভাবনাচিন্তার সময় নেই। ‘বজরঙ্গি ভাইজান’-এর মতো স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে অন্যরকম ট্রিটমেন্টের কমার্শিয়াল ছবির চিন্তা তাই পেছনেই পড়ে থাক! অসুবিধা কি? ‘এমনি করেই যায় যদি দিন যাক না..!’

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *