বেতন বৃদ্ধির দাবিতে এসএসকেএম হাসপাতালে বিক্ষোভ ইআরএস কর্মীদের

Mysepik Webdesk: দীর্ঘ ১৮ বছর বেতন বৃদ্ধি হয়নি। অবিলম্বে বেতন বৃদ্ধির দাবিতে বুধবার এসএসকেএম হাসপাতালে অবস্থান বিক্ষোভ করেন আর এস কর্মীরা। এদিন তাঁরা দাবি করেন, বেতন বৃদ্ধি না হওয়ায় তাঁদের সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। বর্তমানে পিএফ এবং ইএসআই কাটার ফলে তাদের হাতে মাত্র প্রায় সাড়ে সাত হাজার টাকা মাইনে এসে পৌঁছায়। বেতন বৃদ্ধির দাবি নিয়ে গত ২৭ ডিসেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও কাছে গিয়েছিলেন তাঁরা। সেখানেও কোনও সুরাহা না হওয়ায় বাধ্য হয়েই তাঁরা অবস্থান বিক্ষোভের পথ বেছে নিয়েছেন।

আরও পড়ুন: জোকার বাড়ি থেকে উদ্ধার তিনটি ঝুলন্ত দেহ, চাঞ্চল্য এলাকায়

Image result for sskm hospital

এদিন প্রায় ৯০০ জন কর্মী অবস্থান বিক্ষোভে অংশগ্রহণ করেন। বিক্ষোভকারীদের বক্তব্য, তাঁরা চান না কোনওভাবে পরিষেবা ব্যাহত হোক, কিন্তু একপ্রকার বাধ্য হয়েই তাঁরা আন্দোলনের পথ বেছে নিয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে এদিন দুপুরবেলা বিক্ষোভস্থলে পৌঁছান তৃণমূল নেতা মদন মিত্র। প্রথমে সমস্ত ইআরএস কর্মীদের সঙ্গে কথা বলার পর তিনি এসএসকেএম হাসপাতালের ডিরেক্টরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি জানান, হাসপাতালের ডিরেক্টর কোনও কাজ করেন না, সর্বক্ষণ ঠাণ্ডা ঘরে বসে থাকেন এবং বিজেপি-সিপিএমকে এসএসকেএম হাসপাতালে প্রবেশ করানোর চেষ্টা করে চলেছেন। অথচ কর্মীদের সঙ্গে কথা বলতে নারাজ। এমনকি ইএমআরদের জানানো হয়েছে, তারা যেন তাদের এই বৈঠক হাসপাতালের বাইরে গিয়ে করেন।

আরও পড়ুন: দ্বিতীয় হুগলী সেতুতে আর গাড়ি দাঁড় করিয়ে সেলফি নয়, সোজা যেতে হবে হাজতে

মদনবাবু মনে করেন, একজন ডিরেক্টরের উচিত তাঁর কর্মচারীদের পাশে থাকা। তবে ইআরএস কর্মীদের সমস্ত কথা শোনার পর তিনি জানিয়েছেন তাঁদের দাবি-দাওয়া যেন তাঁরা মদন মিত্রর হাতে তুলে দিক এবং মদনবাবুই তাদের দাবি সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে পাঠিয়ে দেবেন। কারণ তিনি মনে করেন, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সবসময় সাধারণ মানুষের পাশে আছেন এবং এসএসকেএমের জন্য তিনি অনেক কিছু করেছেন। তাই ইআরএস কর্মীদের জন্য তিনি কিছু করবেন বলেই আশা করেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *