ঠিক কখন মাস্ক পরা প্রয়োজন, গাইডলাইন দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Mysepik Webdesk: সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পরা, হ্যান্ড স্যানিটাইজার কিংবা সাবান দিয়ে বার বার হাত জীবাণুমুক্ত করা, এই ধরণের সতর্কবার্তা বার বার দিয়ে এসেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। আর এই নিয়মগুলি পালন করেই মানুষ করোনা ভাইরাসকে দূরে রাখতে পারবে বলে জানিয়েছে হু। তবে করোনা প্রতিরোধে মাস্ক ব্যবহার করা নিয়ে বিভিন্ন মতভেদ রয়েছে। কারণ বহুক্ষণ মাস্ক পরে থাকার ফলে অনেকেই শ্বাস প্রশ্বাসে সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন, আবার অনেকেই ত্বকের সমস্যায় ভুগছেন।

আরও পড়ুন: সম্পর্ক ভালো রাখতে যা করবেন জেনে নিন!

COMMENTARY: Masks-for-all for COVID-19 not based on sound data | CIDRAP

সম্প্রতি মাস্ক ব্যবহার করা নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা একটি নয়া গাইডলাইন প্রকাশ করেছে, যেখানে স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে কখন কোথায় নিয়ম মেনে মাস্ক ব্যবহার করলে করোনা থেকে দূরে থাকা যায়। সেন্ট্রাল এসি ঘরে, এসি গাড়ির মধ্যে, কিংবা এসি ঘরের মধ্যে অনেকে একসঙ্গে থাকলে সেক্ষেত্রে মাস্ক পরে থাকা উচিত কারণ ওই সব পরিস্থিতিতে করোনা সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি ছড়িয়ে পড়তে পারে। পাশাপাশি কোনও জনবহুল এলাকায় কিংবা কোনও ইনডোর এলাকায় মাস্ক পরা উচিত। অন্যদিকে জিমে গিয়ে ঘাম ঝরানোর সময় মাস্ক পরে থাকার প্রয়োজন নেই।

আরও পড়ুন: এই কয়েকটা কথা বলেই জিতে নিতে পারেন আপনার প্রিয় নারীর মন

How to help kids adjust to wearing a mask

জিমে গিয়ে শারীরিক কসরত করার সময় মাস্ক পরে থাকলে তাতে হিতে বিপরীত হওয়ার সম্ভাবনা আরও বেড়ে যায়। দম আটকে গিয়ে অসুস্থ হয়ে যাওয়া, এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। অন্যদিকে জনবহুল এলাকায় মাস্ক পরতেই হবে। পাঁচ বছর বয়সের ওপরের শিশুদের মাস্ক পরতে হবে, কিন্তু পাঁচ বছরের নিচে শিশুদের মাস্ক পড়ার প্রয়োজন নেই। মাস্ক পড়ার অভ্যেস যত বেশি হবে করোনাকে দূরে থাকার ক্ষেত্রে তা ততই ভালো।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *