‘সর্বরোগহারা’ ড্রাগন ফল চাষ করে দক্ষিণ দিনাজপুরের চাষিরা লাভবান হচ্ছেন

Dragon Fruits

Mysepik Webdesk: চিরাচরিত ধান, গম, পাট, আলু চাষের পরিবর্তে অধিক লাভের আশায় বিকল্প চাষ হিসেবে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় বাড়ছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘সি’ যুক্ত ড্রাগন ফলের চাষ। মূলত একটা সময় পাশ্চাত্য দেশ মেক্সিকো, থাইল্যান্ড সহ অন্যান্য জায়গায় ড্রাগন ফলের চাষ হলেও এখন অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর ড্রাগন ফলের যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের অনেক বাজারেই। পাশাপাশি জেলায় উত্‍পন্ন ২০০ থেকে ৩০০ গ্রামের ড্রাগন ফল পৌঁছে যাচ্ছে ভিনরাজ্যেও। বর্তমানে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার তপন, কুশমন্ডি ও বংশিহারি, হরিরামপুর ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় সাফল্যের সঙ্গে ড্রাগন ফলের চাষ করে চলেছেন কৃষকেরা।

আরও পড়ুন: প্রায় এক হাজার বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার নদিয়ায়

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বংশিহারি ব্লকের ২নং ব্রজবল্লভপুর নওপাড়া গ্রামের ড্রাগন ফল চাষি বাবলু মাহাতো বলেন, “২০১৬ সাল থেকে ড্রাগন ফলের চাষ শুরু করেছি আমি। প্রথমে অল্প জায়গা নিয়ে চাষ শুরু করলেও পরবর্তীতে ১ একর জমিতে ড্রাগন ফলের চাষ করি। বর্তমানে ১ একর জমি থেকে বছরে ৮ লক্ষ টাকার ড্রাগন ফল বিক্রি করি।”

আরও পড়ুন: কৃষ্ণনগরে রেলে কাটা পড়ে মৃত্যু

নওপাড়া এলাকার ওপর এক ড্রাগন ফল চাষি চিতাম্বর চন্দ্র মাহাতোর কথায়, “লাভবান হয়েছি বলেই সফলতার সঙ্গে বিগত ৫ বছর ধরে ড্রাগন ফল চাষ করছি আমরা। পাশাপাশি এই এলাকায় বহু চাষি এখন ড্রাগন ফল চাষ করেন।” সুতরাং বলাই যায় যে, ‘সর্বরোগহারা’ ফল হিসাবে খ্যাত ড্রাগন ফলের চাহিদা পথপরিদর্শক হয়ে উঠেছে চাষিদের কাছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *