ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ‘বাবা’ সম্মোধন, পাকিস্তানী মহিলার দাবিতে শোরগোল

Mysepik Webdesk: পাকিস্তানী এক মহিলার দাবিতে শোরগোল পরে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই মহিলার একটি ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে, যেখানে ওই মহিলা দাবি করেছেন, ডোনাল্ড ট্রাম্প হল তাঁর বাবা। শুধু তাই নয়, সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকারে ওই মহিলা জানান, “ডোনাল্ড ট্রাম্পই হল আমার আসল বাবা। আর আমি আমার বাবার সঙ্গে দেখা করতে চাই। ট্রাম্প আমার মাকে সবসময় বলত, আমার মা নাকি দায়িত্বজ্ঞানহীন। এই নিয়ে বাবা ও মায়ের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হত। ক্রমাগত দুজনের ঝগড়া শুনে আমি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছি। বাবার সঙ্গে আমার খুব দেখা করতে ইচ্ছে করে।”

আরও পড়ুন: কাবাব খাওয়ার লোভে লকডাউনের মধ্যে গাড়ি নিয়ে বাইরে, পুলিশের জালে তরুণী

তবে বেশিরভাগ মানুষই ওই মহিলার দাবি ভিত্তিহীন বলেই মনে করেছেন। শুধুমাত্র মনগড়া কথা বলে ওই পাকিস্তানী মহিলা প্রচারের আলোয় আসতে চেয়েছেন বলেই মনে করেছেন বেশিরভাগ মানুষ। তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মোট তিনবার বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। ১৯৭৭ সালে নিউ ইয়র্ক শহরের মার্বেল কলেজিয়েট চার্চে ট্রাম্প বিয়ে করেন মডেল ইভানা জেলনিকোভাকে। ডোনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র, এরিক ট্রাম্প ও কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্প তাঁদের সন্তান। ১৯৯০ সালে ইভানার সঙ্গে ট্রাম্পের দাম্পত্য সম্পর্ক যখন চরম তিক্ততায় পরিণত হয়, তখন অভিনেত্রী মার্লা ম্যাপলসের সাথে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন ট্রাম্প। ১৯৯১ সালে ইভানা আর ট্রাম্পের বিবাহ-বিচ্ছেদ ঘটে। ১৯৯৩ সালে ট্রাম্প ভিনেত্রী মার্লা ম্যাপলস এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন।

আরও পড়ুন: করোনা রুখতে আক্রান্তকে গুলি করে মারার নিদান কিমের

ওই বছরেই ডিসেম্বরে তাঁরা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। ফের ১৯৯৯ সালে তাঁদের বিবাহ-বিচ্ছেদ ঘটে। ১৯৯৮ সালে স্লোভেনিয়ান-বংশোদ্ভুত মডেল মেলানিয়া নসের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন ট্রাম্প। ২০০৫ সালে ফ্লোরিডার পাম বিচ দ্বীপে বেথেসডা-বাই-দ্য-সি এপিসকোপাল চার্চে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন তাঁরা। ২০০৬ সালে ট্রাম্পের তৃতীয় স্ত্রী মেলানিয়া মার্কিন নাগরিকত্ব লাভ করেন। ওই বছরেই মিলেনিয়া এবং ট্রাম্প, ব্যারন উইলিয়াম ট্রাম্প নামে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। এই নিয়ে ট্রাম্পের মোট সাতজন নাতি-নাতনি রয়েছে। এদের মধ্যে পাঁচ জন তাঁর পুত্র ডোনাল্ড জুনিয়রের এবং বাকি দু’জন হল ট্রাম্প কন্যা ইভাঙ্কা ট্রাম্পের।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *