গাজার বৃহত্তম লাইব্রেরি ধূলিসাৎ

Mysepik Webdesk: ইসরাইলের বোমা হামলায় নিমেষে মাটিতে মিশে গেল ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকার বৃহত্তর লাইব্রেরি। থালাথেনি রোডে অবস্থিত এই লাইব্রেরিটি ছিল জ্ঞানপিপাসুদের তৃষ্ণা নিবারণের জায়গা। নানা জায়গার পাঠক মহলের মিলনকেন্দ্র ছিল এই লাইব্রেরিটি। লাইব্রেরির পক্ষ থেকে এক ট্যুইট করা হয়, যাতে লেখা ছিল— ‘‘যে লাইব্রেরিটি পথিক ও পাঠকদের মুখে হাসি ফোটাত, সবার প্রিয় স্থান ছিল সেই সামির লাইব্রেরি এখন ইসরাইলের হামলার পর ধ্বংসস্তূপের নিচে হারিয়ে গিয়েছে। এখন তা দৃষ্টি সীমার বাইরে।”

আরও পড়ুন: ফ্রান্সের খসড়া প্রস্তাবে বাধ সাধল আমেরিকা

মিকাদাদ (লাইব্রেরির স্বত্বাধিকারী) ট্যুইটে জানিয়েছেন, ‘‘আমাদের ভালোবাসার স্থান গোলাবারুদে গিলে ফেলেছে। এখন শুধু লাইব্রেরির সামান্য ধ্বংসস্তূপ বাকি।” রাষ্ট্রসংঘের শিক্ষাবিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো ফিলিস্তিনের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি রক্ষায় ইসরাইলের দখলদার বাহিনীর অপরাধের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন। জ্ঞান ও সাংস্কৃতিক কেন্দ্রগুলোতে লাগাতার হামলা কোনো প্রকার সভ্যতা ও সংস্কৃতির মূল্যবোকে মান্য করে না।

আরও পড়ুন: যুদ্ধবিরতির আহ্বান উপেক্ষা, গাজায় আবারও শতাধিক বিমান হামলা

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *