করোনার ভ্যাকসিন নিচ্ছেন? ভুলেও এই ওষুধ খাবেন না

Mysepik Webdesk: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, করোনাকে জয় করতে একমাত্র অস্ত্র দ্রুত ভ্যাকসিন গ্রহণ করা। সেই কারণেই গোটা বিশ্বের পাশাপাশি ভারতেও জোর কদমে চলছে ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এখনও পর্যন্ত ভারতে ৩৪ কোটি ৭৬ লাখ ২৩২ জনের টিকা দেওয়ার কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। ভারতে এই মুহূর্তে দু’টি ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। প্রথমটি ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাকসিন এবং দ্বিতীয়টি সিরাম ইনস্টিটিউটের তৈরি কোভিশিল্ড। তবে ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে আমাদের বেশ কয়েকটি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে, যার মধ্যে অন্যতম হল ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার জন্য সঠিক ওষুধ গ্রহণ করা।

আরও পড়ুন: করোনা-আবহে জাতীয় চিকিৎসক দিবস: কিছু আশঙ্কা, সতর্কতা আর অঙ্গীকার

আমাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন, যারা শরীরে ইনজেকশন নিতে ভয় পান। তারা মনে করেন, ইনজেকশন নেওয়ার সময় বোধহয় খুব ব্যথা করে। সেই কারণে অনেকেই আগে থেকে পেনকিলার বা প্যারাসিটামল জাতীয় ওষুধ খাওয়ার চিন্তাভাবনা করেন। এই ধরণের চিন্তাভাবনা করলে অবশ্যই সাবধান হয়ে যান। চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, ইনজেকশন নেওয়ার সময় আদৌ সেরকম কোনও ব্যথা হয় না। বরং, ইনজেকশন নেওয়ার কিছুক্ষন পর পেশিতে সামান্য ব্যাথা হতে পারে। তাছাড়া ভ্যাকসিন নেওয়ার পর উপসর্গ হিসেবে পরের দিন গা ব্যাথা ও জ্বর হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। অনেকেরই আবার গা বমি ভাবও আসে। চিকিৎসকরা পরামর্শ দিচ্ছেন, সেক্ষেত্রে ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে নয়, ভ্যাকসিন নেওয়ার পর জ্বর কিংবা গা ব্যাথা হলে দু’একটা পেনকিলার বা প্যারাসিটামল খাওয়া যেতে পারে। কিন্তু, ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে কখনোই নয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানাচ্ছে, ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে পেনকিলার বা প্যারাসিটামল খেলে ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা অনেকটাই কমে যায়, ফলে পরবর্তীকালে ভ্যাকসিন নিলেও করোনা আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই থেকে যায়। এমনকি হার্টের সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

আরও পড়ুন: নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে করোনা ভ্যাকসিনের দু’টি ডোজ না নিলে কি হবে জানেন?

চিকিৎসকদের মতে, ভ্যাকসিন নেওয়ার প্রধান কারণ হল করোনার সঙ্গে লড়তে শরীরে অ্যন্টিবডি তৈরি করা। সেক্ষত্রে পেনকিলারের স্টেরয়েড জাতীয় পদার্থ এই অ্যন্টিবডি তৈরিতে বাধা দেয়। তবে অনেকের ক্ষেত্রে চিকিৎসকরা অন্য কোনও রোগের কারণে পেনকিলার খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। আবার অনেকেই চিকিৎসকদের পরামর্শমতো নিয়মিত পেনকিলার খেয়ে যান। সেক্ষেত্রে যেদিন তিনি ভ্যাকসিন নেবেন, সেদিন ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে পেনকিলার এড়িয়ে চলতে হবে। তবে যেটাই খান, অবশ্যই চিকিৎসকদের পরামর্শ নিয়েই খাওয়া উচিত। প্রত্যেকের মনে রাখা দরকার, প্রত্যেকটি মানুষের শারীরিক গঠন ও রোগের ধরণ আলাদা। সেক্ষেত্রে কারোর দেখাদেখি ওই একই ওষুধ খাওয়া কখনোই সমীচীন নয়।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *