নদিয়া শান্তিপুর ব্লকের হরিপুর পঞ্চায়েতেরাতভোর তাণ্ডব দুষ্কৃতীদের, তছরুপ বহু সরকারি নথি

নদিয়া, ২৪ সেপ্টেম্বর: রাতের অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে তালা ভেঙে গ্রাম পঞ্চায়েতে গুরুত্বপূর্ণ নথি পত্র চুরি করে নিয়ে গেল দুষ্কৃতীরা। ছটি আলমারির তালা ভাঙার পাশাপাশি আরও পাঁচটি আলমারির থেকেও বিভিন্ন সরকারি নথিপত্র নষ্ট করেছে দুষ্কৃতীরা। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার শান্তিপুর থানার হরিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে।

আরও পড়ুন: করোনায় প্রয়াত হলেন হরিদেবপুর থানার অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইন্সপেক্টর

সূত্রের খবর, এদিন সকালে হরিপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের মূল দরজা এবং পাশের একটি গ্রিলের দরজার তালা ভাঙা অবস্থায় দেখতে পান ওই পঞ্চায়েতের অস্থায়ী কর্মী সুশীল বিশ্বাস। তিনিই তারপর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান শোভা সরকারক-সহ বিভিন্ন বিভাগীয় কর্মকর্তাদের খবর দেন। খবর পেয়ে পঞ্চায়েত অফিসে ছুটে আসেন কর্মীরা। তাঁরা এসে দেখেন পঞ্চায়েত অফিসের কম্পিউটার বা অন্যান্য কিছুর ক্ষতি না করেই আলমারির ভিতরে রাখা বিভিন্ন সরকারি নথি ছড়িয়ে রয়েছে এলোমেলোভাবে। প্রায় প্রত্যেকটি আলমারির তালা ভাঙ্গা এবং টেবিলের বেশ কয়েকটি ড্রয়ার ভাঙ্গা অবস্থায় রয়েছে।

আরও পড়ুন: মাওবাদী নামাঙ্কিত পোষ্টার ঘিরে চাঞ্চল্য পাঁড়ইয়ের গ্রামে

তৎক্ষণাৎ খবর দেওয়া হয় শান্তিপুর থানার পুলিশকে। ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন শান্তিপুর থানার পুলিশ। পঞ্চায়েত প্রধান শোভা সরকার বলেন, দিনের শেষে প্রতিদিনের টাকা ব্যাঙ্কে জমা দিয়ে দেওয়া হয়। সেইকারণে পঞ্চায়েত অফিসে কোনও টাকা পয়সা ছিল না। পঞ্চায়েত প্রধানের অভিযোগ, এর পেছনে গভীর রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র রয়েছে। এক্সিকিউটিভ অ্যাসিস্ট্যান্ট গোবিন্দ ঘোষ জানান, এটা প্রতিহিংসামূলক ঘটনা বলেই মনে হচ্ছে। তবে নথিপত্র ছাড়া আরও অন্য কিছু চুরি হয়েছে কিনা তার তদন্ত শুরু করেছে শান্তিপুর থানার পুলিশ। অভিযুক্ত এখনও অধরা।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *