হ্যাটট্রিক: টানা তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন মমতা

Mysepik Webdesk: রাজভবনের টাউন হলে পশ্চিমবঙ্গে বড় জয়ের পরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বুধবার সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে রাজ্যপালের উপস্থিতিতে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নিলেন। তাঁর মন্ত্রিসভার সহকর্মীরা এর পরের দিন শপথ নেবেন। বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি এবং বঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষও আমন্ত্রিত ছিলেন। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, বামফ্রন্টের বিমান বসুকেও আমন্ত্রিত করা হয়েছিল। অনুষ্ঠানের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্য সচিবালয়ে যাবার কথা। অনুষ্ঠানে ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোরসহ শীর্ষস্থানীয় তৃণমূল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন: এটাই পশ্চিমবাংলার ঐতিহ্য

রাজ্যে তৃতীয়বারের মতো মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দায়িত্ব সামলাবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে নন্দীগ্রাম আসন থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হেরে গেছেন। সেই কারণে বছর ৬৬ বছর বয়সি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আবারও একটি আসন থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হতে পারে। এর আগে ২০ মে ২০১১, মমতা প্রথমবারের মতো মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণ করেছিলেন। ২৭ মে ২০১৬-তে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দ্বিতীয়বার শপথ নিয়েছিলেন মমতা।

আরও পড়ুন: বাংলা নিজের মেয়েকেই চাইল, কিন্তু বাংলার মানুষও এখনও অনেক কিছু চায়

ফাইল চিত্র

১৯৫০ সাল থেকে বাংলার শাসনভার কংগ্রেসের হাতেছিল। ১৯৭৭ সালে যখন এই রাজ্য রাজনৈতিক কোন্দলের মুখোমুখি হয়েছিল, তখন জনগণ বামদেরকে নির্বাচন করেছিল। এর পর টানা সাতটি বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করেছিল বামেরা। বামেরা সিপিএমের নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে পুরো ৩৪ বছর শাসন করেছিল। পশ্চিমবঙ্গে বামপন্থার অবসান ঘটিয়ে মমতার তৃণমূল ক্ষমতা দখল করেছিল। তারাই গত দশ বছর ধরে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার সঙ্গে বাংলায় রাজত্ব করছে। এবারও তৃণমূল কংগ্রেস বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ফিরে এসেছে।

আরও পড়ুন: পোস্টমর্টেম: ২০২১ বাংলা বিধানসভা নির্বাচনের অন্তর্স্বর

ফাইল চিত্র

৩ মে পার্টি বিধায়ক দলের নেত্রী হিসাবে নির্বাচিত করা হয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। দল বিধানসভা দলের নেতা নির্বাচিত হয়েছিলেন। সভা শেষ হওয়ার পরে মমতা জানিয়েছিলেন যে, শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানটি সাধারণভাবে করবে দল। তিনি বলেছিলেন, “যতক্ষণ না করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে দেশ জিতবে, ততক্ষণ আমরা কোনও রূপ উদ্‌যাপন করব না।” উল্লেখ্য যে, টিএমসি নির্বাচনে ২১৪টি আসন পেয়েছে। ৩ মে সন্ধ্যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে দেখা করেছিলেন। যদিও এবারের মতো এত অনাড়ম্বর অনুষ্ঠান আগে কখনও দেখা যায়নি। কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে এই অনুষ্ঠান সত্যিই ব্যতিক্রমী। অনুষ্ঠান শেষে ফোটো সেশন অনুষ্ঠানের পর রাজ্যপালের সঙ্গে রয়েছে একটি চা-চক্র। এরপর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যাবেন নবান্নের চোদ্দ তলায়, মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ে।

কভার ছবি: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টুইটার থেকে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *