আপনি কি খুব তাড়াতাড়ি রেগে যাচ্ছেন তাহলে জেনে নিন রাগ কমানোর কয়েকটি সহজ উপায়

Angry

Mysepik Webdesk: আপনার জীবন থেকে কোন জিনিসটা সরিয়ে রাখতে পারলে আপনি ভালো থাকবেন ? এমন প্রশ্নের উত্তরে আপনি হয়তো, রাগের কথাই বলবেন। রাগ মানুষের অনেক ক্ষতি করে। আপনি অবশ্যই রাগ করবেন কিন্তু এই রাগের মধ্যেও নিজেকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। প্রতিটি মানুষেরই রাগ থাকে। তবে অতিরিক্ত রাগ মোটেও ভালো নয়। যেহেতু রাগ কোনো ভালো প্রতিক্রিয়া নয়, তাই মনের ওপর নিয়ন্ত্রণ এনে রাগ কমিয়ে ফেলাই বুদ্ধিমানের কাজ। আপনি নিশ্চয়ই রাগ কমাতে চান? যদি সত্যিই চান, রাগকে সংবরণ করতে, তাহলে মেনে চলুন বিশেষজ্ঞদের দেওয়া কিছু পরামর্শ।

আরও পড়ুন: ঘরে ইঁদুরের উৎপাতে জেরবার? এই ঘরোয়া উপায়ে সহজেই তাড়ান ইঁদুর

১. ঝটপট রাগ কমাতে চাইলে উল্টো করে ১০ থেকে ১ পর্যন্ত গন্তে শুরু করুন। এতে রাগ অনেকটাই কমে যায়।

২. চেষ্টা করুন প্রতিদিন নিয়মিত যোগব্যায়াম বা মেডিটেশন করতে। এর ফলে সহ্যক্ষমতা অনেক বেড়ে যায়। এতে রাগের প্রবণতাও কমে।

৩. সর্বদা ইতিবাচক ভাবনা, ইতিবাচক কথা বলা এবং ইতিবাচক মনোভাব অনুশীলন করার মাধ্যমে রাগ কমাতে পারেন।

৪. রেগে গেলে মনকে যতটা সম্ভব শান্ত রাখার চেষ্টা করুন। সেই সঙ্গে মস্তিষ্ককে অন্যকাজে ব্যস্ত রাখার চেষ্টা করুন। যখন শান্ত হয়ে যাবেন, আপনার রাগের কারণগুলো তার সামনে তুলে ধরুন, ততক্ষণে অপরজনের মাথাও ঠান্ডা হয়ে যাবে, তিনিও ভালোভাবে আপনার কথা বুঝতে পারবেন।

আরও পড়ুন: এই সহজ নিয়মগুলি মানলেই আপনি সহজেই কমাতে পারেন গাড়ির তেলের খরচ

৫. যার কারণে আপনি রেগে গেছেন, তার সঙ্গে কথা বা তর্কে না গিয়ে কিছুক্ষণ চুপ করে থাকুন। একবার চিন্তা করুন যে আপনার রেগে যাওয়াটার কারণ যুক্তিসংগত কি না রাগ কমে যাবে।

৬. খুব রেগে গেলে এক গ্লাস জলও পান করতে পারেন। এতে আপনার মানসিক অবস্থার পরিবর্তন হবে এবং আপনার রাগ কিছুটা কমবে। সেই সঙ্গে অল্প সময়ে রাগ কমাতে আপনি বারবার নিঃশ্বাস নিতে পারেন।

৭. রেগে গেলে চেষ্টা করবেন নিজের মানসিক অবস্থার পরিবর্তন করতে। সেটা হতে পারে গান শুনে, ছবি এঁকে, রান্না করে বা নিজের পছন্দের অন্য কোনো কাজ করে। তাছাড়া মনে মনে আপনার খুব পছন্দের একটা গান গুনগুন করার করতে পারেন। দরকারে কানে হাত দিয়ে, আশেপাশের আওয়াজ শোনা বন্ধ করে দিন। সেক্ষেত্রে আপনার প্রিয় গানে মনোনিবেশ করতে সুবিধা হবে।

৮. বাস্তবকে মেনে নিতে শিখুন। সব মানুষ এক না, বিষয়টি মেনে নেওয়া জরুরি। নিজের গ্রহণযোগ্যতা বাড়ানোর মাধ্যমেও স্থায়ীভাবে রাগ কমাতে পারেন।

৯. নিজের রাগের মাত্রা সম্পর্কে সতর্ক থাকুন। রাগান্বিত অবস্থায় আপনাকে কেমন দেখাচ্ছে, তা জানতে সহকর্মী বা আশপাশের কাউকে জিজ্ঞেস করুন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *