অনলাইন শপিংয়ে জালিয়াতির হাত থেকে বাঁচতে খেয়াল রাখুন এই কয়েকটি সহজ বিষয়

online shopping

Mysepik Webdesk: করোনা আবহে আমরা অনেকেই এখন শপিং মল কিংবা দোকানে গিয়ে কেনাকাটা পছন্দ করি না। সেক্ষেত্রে একমাত্র ভরসা অনলাইন শপিং। প্রায়ই আমরা আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন জিনিস অনলাইনে অর্ডার করে থাকি। তবে অনলাইন কেনাকাটা করার পর পেমেন্ট করার সময় আমরা কয়েকটি ভুল প্রায়ই করে থাকি। আর এই ছোট্ট ভুলের কারণে আমরা সাইবার জালিয়াতের হাতে পড়তে পারি যা আমাদের ব্যাঙ্ক ব্যালান্সকে একেবারে খালি করে দিতে পারে। তবে কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখলে আমরা সেই জালিয়াতির হাত থেকে রক্ষা পেতে পারি। আসুন একনজরে দেখে নিন সেই বিষয়গুলি কী কী।

আরও পড়ুন: ‘মাস্ক পরে সেক্স করুন, ভুলেও চুম্বন নয়!’ পরামর্শ ডাক্তার থেরেসা তামের

১) সঠিক ওয়েবসাইটে নির্বাচন করুন: অনলাইন কেনাকাটার সময় সঠিক এবং নিরাপদ ওয়েবসাইটকে চিহ্নিত করা খুবই প্রয়োজনীয়। আজকাল জালিয়াতরা Amazon বা Flipkart-এর নামে ভুয়ো ওয়েবসাইট তৈরী করে। আর এখানে অস্বাভাবিক কম দামে জিনিসপত্র বিক্রি করার প্রলোভন দেওয়া হয়। এইসব ওয়েবসাইটে থেকে কিনলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই টাকা কেটে নিয়ে জিনিসপত্র পাঠানো হয়না, কিংবা জিনিস পাঠালেও নকল জিনিস পাঠানো হয়।

২) আসল ওয়েবসাইট কীভাবে চিনবেন: আসল ওয়েবসাইট জানতে গেলে প্রথমেই দেখুন ওয়েবসাইটের এড্রেসে সবুজ রঙের লক আছে কিনা। সেখানে যদি https লেখা না থাকে তাহলে সেই ওয়েবসাইটটি সুরক্ষিত নয়। আর ভালো করে দেখলে বুঝতে পারবেন ওয়েবসাইটের এড্রেস কিছুটা আলাদা। সেক্ষেত্রে সাবধান হয়ে যান।

আরও পড়ুন: সঞ্চয় করতে পারছেন না! জেনে নিন কিভাবে খরচ কমিয়ে সঞ্চয় করবেন?

৩) সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম থেকে কেনার আগে সাবধান: অনেক সময় ফেসবুকে দেখা যায়, হাজার হাজার টাকার জিনিস মাত্র ১০০-১৫০ টাকায় বিক্রির অফার দেওয়া হয়। ওই সব মেসেজে Amazon বা Flipkart-এর লোগোও ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এগুলির অন্তত ৯৯ শতাংশ নকল হয়।

৪) ক্যাশ অন ডেলিভারি বেছে নিন: অনলাইন কেনার সময় যদি দেখেন ক্যাশ অন ডেলিভারির অপসন রয়েছে, তাহলে সেই অপশনটাই বেছে নিন। হাতে হাতে জিনিস পাওয়ার পর সেগুলি যাচাই করে তবেই টাকা দিন। এক্ষেত্রে প্রতারিত হওয়ার সুযোগ কম থাকে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *