অবিলম্বে গড়ে দিতে হবে হিন্দু মন্দির, নির্দেশ পাক-আদালতের

Mysepik Webdesk: সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার পাকিস্তানের নতুন কোনো ঘটনা নয়। একাধিকবার এই ধরণের ঘটনা সংবাদপত্রের শিরোনামে উঠে এসেছে। সম্প্রতি পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টে এরকমই একটি রিপোর্ট পেশ হয়েছে, আর ওই রিপোর্টে জানা গিয়েছে, গত কয়েকবছর ধরে পাকিস্তানে বহু হিন্দু ধর্মস্থানেও ওপর আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে। শুধু তাই নয়, এই ঘটনায় পাকিস্তানে বহু হিন্দু ধর্মস্থান আজ প্রায় ধ্বংসের মুখে। আর এই ঘটনায় আঙ্গুল উঠেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের গাফিলতির দিকে।

আরও পড়ুন: এবার সুকি-র কার্যালয়ে অভিযান মায়ানমারের সেনাবাহিনীর

Image result for khyber pashtun hindu temple

এবার ধ্বংস হয়ে যাওয়া হিন্দু মন্দিরগুলি পুনরায় স্থাপন করে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিল পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট। পাকিস্তানের খাইবার-পাখতুনখোয়া সরকারকে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, গত ডিসেম্বর মাসেই খাইবার-পাখতুনখোয়ার কড়ক জেলার তেরি গ্রামে একটি শতাব্দী প্রাচীন মন্দির ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে জামাত উলেমা-ই-ইসলামি সংগঠনের ওপর। এই ঘটনাটি পাকিস্তান সরকারের নজরে আনে ভারত। আর তারপরেই নড়েচড়ে বসে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুন: চিনে করোনার উৎপত্তি নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হু-এর তদন্তকারী দলের হাতে

Image result for pakistan supreme court

সোমবার পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি গুলজার আহমেদের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ ওই ভেঙে ফেলা হিন্দু মন্দিরটি পুনর্নির্মাণের রায় দেয়। গুলজার আহমেদ বলেন, “এই মন্দির ধ্বংসের ঘটনার সঙ্গে জড়িত কোনও সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করা হলে, তা যেন অবশ্যই আদালতকে জানানো হয়।” শুধু তাই নয়, ওই মন্দিরটি নির্মাণ করার জন্য মোট ৩০ লাখ ৪১ হাজার টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। সেই টাকা অভিযুক্তদের কাছ থেকে আদায় করার নির্দেশ দেয় আদালত।

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *