ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে সেজে উঠছে দেশের বিভিন্ন শহরের হোটেল, পাব, ক্যাফেটেরিয়া

Mysepik Webdesk: আজ যেন বিশ্বকাপ টি-টোয়েন্টি ফাইনালের আগেই আরও এক ফাইনাল। এদিন রবিবাসরীয় সন্ধ্যায় রয়েছে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। হাই-ভোল্টেজ এই ম্যাচের জন্য দুবাইয়ের স্টেডিয়াম প্রস্তুত হলেও দেশের শহরগুলিতেও চলছে প্রস্তুতি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দুই দেশের এই ম্যাচ ঘিরে ভক্তদের মধ্যে রয়েছে আবেগের পরিবেশ। এই আবেগের বহিঃপ্রকাশ ঘটবে ভারতের সেই সমস্ত শহরের হোটেল, পাব, ক্যাফেটেরিয়াও।

ভারতীয় ক্রিকেটের প্রাচীনতম শহর ইন্দোরে, হোটেল, পাব, ক্যাফে থেকে চায়ের দোকান পর্যন্ত ভক্তদের জন্য ম্যাচের লাইভ স্ক্রিনিংয়ের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। বেশিরভাগ জায়গায় ভক্তরা ইতিমধ্যেই প্রজেক্টরের সামনে আসন বুক করে রেখেছেন, যাতে ম্যাচের প্রতিটি উত্তেজনাপূর্ণ মুহূর্ত পুরোপুরি উপভোগ করতে পারেন। টিম ইন্ডিয়ার জন্য গলা ফাটাতে তাঁরা তৈরি। বিভিন্ন জায়গায় ডিজেও বসানো হয়েছে। আনা হয়েছে ড্রামসও।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ জিতবে ভারত, মনে করেন সৌরভ গাঙ্গুলি

সেখানকার ক্যাফে বার অপারেটররা গ্রাহকদের আকৃষ্ট করার জন্য বিশেষ প্রস্তুতি নিয়েছেন। তাঁরা যাতে স্টেডিয়ামের মতো অনুভব করতে পারেন, তারজন্য সেখানে ভক্তদের জন্য বিশেষ ছাড়ের অফারও রাখা হয়েছে। এবি রোডের ড্রিংকস এক্সচেঞ্জে ৭টি টিভি ও ২টি প্রজেক্টরে ম্যাচের লাইভ স্ক্রিনিং করা হবে। রাখা হয়েছে একটি নীল থিমও। অ্যাপোলো প্রিমিয়ারে পিয়ানো প্রজেক্ট চারটি টিভি এবং একটি প্রজেক্টরে ম্যাচটি সরাসরি দেখাবে। আর ক্যাফে বারে থাকবে তিনটি টিভি এবং একটি প্রজেক্টর। সকলের জন্যই থাকছে পানীয় এবং খাবারের উপর বিশেষ অফার।

সত্যসাই রোডে অবস্থিত হাউস অফ মল্টে ৩টি টিভি এবং একটি প্রজেক্টরে লাইভ স্ক্রিনিং করা হবে। এর সঙ্গে স্টেডিয়াম স্টেডিয়াম ফিলিং দিতে ঢোল কিংবা ড্রামসও বাজবে। কোনও ব্যাটার চার ও ছক্কা হাঁকালে বাজবে গান। অ্যারন হাইটসের শো অফ কিচেন অ্যান্ড বার ৩টি টিভি এবং ১টি প্রজেক্টরে ম্যাচ দেখাবে। থাকবে ডিজে। এর পাশাপাশি যাঁরা  এখানে আসবেন, তাঁদের দেওয়া হবে ভারতের জাতীয় পতাকা। সুদামা নগরের লা কাপ বশি ক্যাফেতে ম্যাচের লাইভ স্ক্রিনিংয়ের পাশাপাশি আকর্ষণ হল এখানকার খাবারে। কারণ এই ক্যাফের মেন্যু রেঙে উঠেছে ক্রিকেটের রঙে। খাবারের নাম রাখা হয়েছে কোহলি কম্বো, নো চিজ বল, ইন্ডিয়া টি, হেলিকপ্টার শট। এভাবেই এলইডি স্ক্রিন বসিয়ে বিশেষ প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: আইপিএলে দল কিনতে চলেছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড!

কাতোরাতাল রোডের 7SPICE রেস্তরাঁয় ম্যাচের সময় রাতের খাবারের জন্য আসা দম্পতিদের জন্য ১০% ছাড় দেওয়া হচ্ছে। এখানেও এলএইডি টিভিতে ম্যাচ দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। কুশওয়াহা ফুলবাগের টি পয়েন্টে ম্যাচ চলাকালীন ৭ টাকার কাট চা দেবে, পাওয়া যাবে স্পেশাল ক্রিম সহযোগে মাত্র ৫ টাকায়। গোয়ালিয়র ডিভিশন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (জিডিসিএ) প্রধান কোচ বিজয় প্রকাশ শর্মা বলেছেন, ‘মাঠে জয়-পরাজয়ের প্রভাব উভয় দেশের কোটি কোটি ক্রিকেটপ্রেমীদের উপর পড়ে।’ ক্রিকেটার প্রিয়াংশু বলছেন, ‘টিম ইন্ডিয়া অনেক শক্তিশালী, তাই ভারতের জয়ের সম্ভাবনা বেশি।’

মুরাদাবাদে এই হাই-ভোল্টেজ ম্যাচে টিম ইন্ডিয়ার ফাস্ট বোলার মহম্মদ শামিকে নিয়ে ভক্তদের অনেক আশা। শামির গ্রাম সহসপুর আলিনগরে সমর্থকদের উৎসাহ আকাশচুম্বী। শামির গ্রাম থেকে তাঁর স্কুল পর্যন্ত ভারতের জয়ের জন্য প্রার্থনা করা হচ্ছে। শামির গ্রামের সবাই আশাবাদী যে, তাঁর বোলিংয়ের তেজে ভস্মীভূত হয়ে যাবে পাকিস্তান। শামির প্রতিবেশী এবং গ্রামবাসীরা তাঁকে নিয়ে বেশ আবেগপ্রবণ। তাঁরা সেই দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করছেন, যখন শামি বাড়ির কাছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা প্লাস্টিকের বল নিয়ে অনুশীলন করতেন।

পটনতেও জমজমাট পরিবেশ। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে তরুণদের মধ্যে প্রচণ্ড উন্মাদনা রয়েছে। ফেস আর্টের মাধ্যমে তরুণ ভক্তরা তাঁদের অনুভূতি প্রকাশ করছেন। মহিলারাও কিন্তু এই ব্যাপারে পিছিয়ে নেই। পটনা-ভিত্তিক শিল্প নির্মাতা রাজ বলছেন, তরুণদের মধ্যে ফেস আর্ট তৈরির ক্রেজ দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। অনেক মহিলাও আমাদের কাছে আসছেন, যাঁরা টিম ইন্ডিয়াকে উৎসাহিত করতে তাঁদের মুখে ভারতের জাতীয় পতাকা এঁকেছেন। তাঁদের আশা, ক্রিকেটে ভারতের রাজত্ব অটুট থাকবে এবং পাকিস্তানকে হারাবে বিরাট-ব্রিগেড।

আরও পড়ুন: ভারত-পাক টি-টোয়েন্টিতে সফল বোলার করা, দেখে নিন তালিকা

আজ করবা চৌথ। সঙ্গে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। ভোপালে যেন এই নিয়ে ডাবল উৎসবের আমেজ। পর্যটন উন্নয়ন কর্পোরেশনের একটি ইউনিট হোটেল লেক ভিউ রেসিডেন্সি কমপ্লেক্সে একটি ‘করবা চৌথ সেলফি পয়েন্ট’ তৈরি করা হয়েছে। কমপ্লেক্সটিতে প্রায় ৮০টি গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা যায়। তাছাড়াও রয়েছে দু’চাকার গাড়ি রাখার ব্যবস্থাও। সেখানেই রাখা হয়েছে ৫০টি বিলাসবহুল চেয়ার, যেখানে বসে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ উপভোগ করতে চলেছেন ভক্তরা।

এখানে অবস্থিত ড্রাইভ ইন সিনেমায় একটি বিশাল ৭০X৩০ স্ক্রিনে সরাসরি দেখানো হবে ম্যাচটি। উচ্চ মানের শব্দের ৪টি বুফার এবং প্রায় ৫০টি স্পিকার ইনস্টল করা রয়েছে। পুরনো ক্যাম্পিয়ন মাঠের কাছে ভোজপুর ক্লাবে প্রজেক্টরের মাধ্যমেও সরাসরি সম্প্রচার করা হবে ম্যাচটি। থাকছে রাতের খাবারের ব্যবস্থাও। টিটি নগর স্টেডিয়ামে জায়ান্ট স্ক্রিনে ম্যাচ দেখানোর জন্য প্রস্তুতিও নেওয়া হচ্ছে। এখানকার শিক্ষানবিশ শিশুরা বলছে, ‘বিশ্বকাপে পাকিস্তান সবসময়ই হারে। এবারও আমরা তাদের হারাব।’

তথ্য ঋণ দৈনিক ভাস্কর

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *