অলিম্পিকের জন্য ভারতীয় রেসলাররা কতটা প্রস্তুত?

Mysepik Webdesk: অলিম্পিক আসন্ন। ভারতীয় কুস্তিগীররা তাই বিদেশি খেলোয়াড়দের চ্যালেঞ্জ জানাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপে ট্রেনিং নিচ্ছেন। আসুন জেনে নেওয়া যাক, সাম্প্রতিককালে রেসলারদের পারফরম্যান্স কেমন ছিল এবং তাঁদের কোন কোন খেলোয়াড়দের সঙ্গে চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে হতে পারে।

দীপক পুনিয়া: ৮৬ কেজি

২০১৮ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ভারতকে একমাত্র রৌপ্য পদক দিয়েছিলেন। চোটের কারণে ফাইনালে উঠতে পারেননি। জুনিয়র ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে গোল্ডও জিতেছিলেন তিনি। এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে দু’টি ব্রোঞ্জ পদক রয়েছে তাঁর নামে।

প্রস্তুতি – সেপ্টেম্বরে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন দীপক। তবে ভাইরাসকে পরাস্ত করে হরিয়ানার দীপক শীঘ্রই সাইয়ে প্রশিক্ষণ শুরু করেছিলেন। লকডাউনের সময় গ্রামেই ট্রেনিং নিতেন।

চ্যালেঞ্জ – রিও অলিম্পিকের স্বর্ণপদক বিজয়ী ইরানের হাসান ইয়াজদানি হবেন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। ২০১৭ এবং ২০১৮ বিশ্বকাপের চ্যাম্পিয়ন হলেন আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ডেভিড টেলরও হতে পারেন তাঁর প্রতিপক্ষ।

বজরং পুনিয়া: ৬৫ কেজি

হরিয়ানার বজরং পুনিয়া ২০১৯ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ জিতে অলিম্পিকের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন। তিনি ২০১৯-এর এপ্রিলে চিনে অনুষ্ঠিত এশিয়া চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা এবং ২০২০ সালে রুপো জিতেছিলেন।

প্রস্তুতি – বর্তমানে আমেরিকা ট্রেনিং নিচ্ছেন। মিশিগানের ক্লিফ কেন রেসলিং ক্লাবে তাঁকে প্রশিক্ষণের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তিনি সাই সোনাপেট সেন্টারেও প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন।

চ্যালেঞ্জ – টাকোটো ওতোগুরো, ২০১৮ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের স্বর্ণপদক পেয়েছিলেন। ওতোগুরোর বিপক্ষে দু’টি ম্যাচে খেলেছেন বজরং। দু’টিতেই হেরেছেন এই ভারতীয়। রাশিয়ার গাজাহিমুরাদ রাশিদভও তাঁর জন্য কঠিন প্রতিপক্ষ।

ভিনেশ ফোগাট: ৫৩ কেজি

হরিয়ানা থেকে আসা ভিনেশ একমাত্র মহিলা কুস্তিগীর যিনি অলিম্পিকের জন্য যোগ্যতা অর্জন করেছিলেন। ২০১২ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে তিনি ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দিল্লিতে এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপেও ব্রোঞ্জের সন্ধান পাওয়া গিয়েছিল।

প্রস্তুতি – আগস্টে ইতিবাচক। বর্তমানে হাঙ্গেরিতে প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। ২৪ জানুয়ারি থেকে ৫ ফেব্রুয়ারি পোল্যান্ডে প্রশিক্ষণও রয়েছে। লকডাউনের আগে তিনি নরওয়েতে প্রশিক্ষণ নিচ্ছিলেন।

চ্যালেঞ্জ – ২০১৭-২০১৯ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের রুপোর পদক জেতা জাপানের বিপক্ষে তিনটি ম্যাচে হেরেছেন তিনি। এছাড়াও প্যান আমেরিকান চ্যাম্পিয়ন হিলডেব্র্যান্ডও তাঁর কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।

উল্লেখ্য যে, এখনও পর্যন্ত অলিম্পিকে ১টি রুপো এবং ৪টি ব্রোঞ্জ জিতেছে ভারত। এই সংখ্যাটা বাড়তে চলেছে এবার? সময়ই এর উত্তর দেবে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *