দিঘা-মন্দারমনিতে হোটেলে থাকতে গেলে করোনার দু’টি টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক

Mysepik Webdesk: করোনা আবহে বন্দিদশার একঘেয়েমি কাটাতে দু’একদিনের জন্য কাছাকাছি কোথাও একটু ঘুরে আসতে কেই না চায়। আর শহর কলকাতার বাসিন্দা হলে তো আর কথাই নেই। কাছাকাছি কোথাও ঘুরতে যাওয়ার কথা মনে আসলে প্রথমেই মনে আসে দিঘা, মন্দারমণি কিংবা শঙ্করপুরের সমুদ্র সৈকতের কথা। রাজ্যের করোনা বিধিনিষেধের ওপর রাশ কিছুটা আলগা করে দেওয়ার পর রাজ্যের হোটেল, লজগুলি খুলে দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে করোনা আবহে ওই সব হোটেলগুলিতে থাকতে গেলে এবার থেকে কাছে রাখতে হবে আরটি পিসিআর নেগেটিভ রিপোর্ট অথবা ভ্যাকসিনের দু’টি ডোজ নেওয়ার সার্টিফিকেট।

আরও পড়ুন: তৃণমূলে শত্রুঘ্ন সিনহা! তুঙ্গে রাজনৈতিক জল্পনা

রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্য দপ্তরের পক্ষ থেকে এমনটাই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বাংলার জনপ্রিয় পর্যটন কেন্দ্রের হোটেলগুলিতে। ভ্যাকসিন নেওয়ার সার্টিফিকেট না থাকলে কিংবা একটি টিকা নেওয়া থাকলে সেক্ষেত্রে পর্যটকদের কাছে থাকতে হবে আরটিপিসিআর টেস্টের নেগেটিভ রিপোর্ট, যা সর্বোচ্চ ৪৮ ঘণ্টা আগে করা হয়েছে। পাশাপাশি ভ্যাকসিনের দু’টি ডোজ নিয়ে নিয়েছেন, এমন পর্যটকদেরও হোটেলে ঘর নেওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে। রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি যাতে নিয়ন্ত্রণে থাকে, তা নিশ্চিত করতেই এই সিদ্ধান্ত বলে জানানো হয়েছে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে।

আরও পড়ুন: প্রত্যেক বছর SSC এবং প্রাইমারি TET পরীক্ষা হবে, ঘোষণা করলেন ব্রাত্য বসু

পাশাপাশি স্বাস্থ্য দপ্তরের ওই নির্দেশিকায় আরও বলা হয়েছে, হোটেল কিংবা লজের ভিতরে পর্যটকদের থাকাকালীন করোনা সংক্রান্ত যাবতীয় বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে৷ পর্যটকরা যাতে বিধিনিষেধ মানেন, তা নিশ্চিত করতে হবে সংশ্লিষ্ট হোটেল বা লজ কর্তৃপক্ষকেই। এর অন্যথায় জবাবদিহি করতে হবে হোটেল কর্তৃপক্ষকে। এমনকী নিয়ম লঙ্ঘন করার কোনও ঘটনা প্রকাশ্যে আসলে ওই হোটেল কিংবা লজের বিরুদ্ধে মহামারী নিয়ম লঙ্ঘন আইনের আওতায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *