রোহিতের ১৬১-তে ভর করে ভারত দিনের শেষে ৬/৩০০

Mysepik Webdesk: চেন্নাইয়ের চিপক স্টেডিয়ামে ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচটি আজ শুরু হয়েছে। টস জিতে টিম ইন্ডিয়া প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। প্রথম দিনের খেলা শেষে ভারত ৬ উইকেট হারিয়ে ৩০০ রান করেছে। ঋষভ পন্থ অপরাজিত আছেন ৩৩ রানে। টিম ইন্ডিয়ার এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের সঙ্গে ৫ রানে অপরাজিত রয়েছেন অক্ষর প্যাটেল। ভারতীয় স্কোরবোর্ডে যতটা সম্ভব বেশি রান তোলার জন্য এই দুই ক্রিকেটারকে আগামীকাল বাড়তি দায়িত্ব নিতে হবে। দিনের শেষ উইকেটটি পড়ে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের। দক্ষিণ ভারতীয় এই ভারতীয় ক্রিকেটার ১৩ রানে আউট হন। জো রুটের বলে অলি পোপের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। অজিঙ্কা রাহানে ৬৭ রানে আউট হন। মইন আলির বলে ক্লিন বোল্ড হন তিনি। ওপেনার রোহিত শর্মা সর্বোচ্চ ১৬১ রান করেছেন। তবে অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং শুভমান গিল রানের খাতা খুলতে পারেননি। ইংল্যান্ডের হয়ে জ্যাক লিচ এবং মইন আলি দু’টি করে উইকেট নিয়েছিলেন। যেখানে অলি স্টোন ও জো রুট উভয়েই নিয়েছেন ১টি করে উইকেট।

আরও পড়ুন: শেষ হল মোহনবাগানের বহু প্রতীক্ষিত বার্ষিক সাধারণ সভা

Image

ভারতীয় দলের শুরুটা খুব খারাপ ছিল। ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারে প্রথম উইকেট হারায় বিরাট বাহিনী। ইংলিশ ফাস্ট বোলার অলি স্টোন শূন্য রানে ফেরান ফর্মে থাকা শুভমান গিলকে। এরপরে চেতেশ্বর পুজারা ২১ রানে আউট হন। তিনি বেন স্টোকসের হাতে লেচের বলে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। রোহিত ও পুজারা দ্বিতীয় উইকেটে ৮৫ রানের জুটি গড়েন। ভারত টানা দুই ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ফেলে। ২১ ওভারে পুজারা এবং ২২ ওভারে কোহলি। মইন আলির একটা বিশ্বমানের বলে শূন্য রানে ক্লিন বোল্ড হয়েছিলেন বিরাট। এই নিয়ে একাদশবার শূন্যে আউট হলেন ভারত অধিনায়ক।

আরও পড়ুন: ২৩ ফেব্রুয়ারি বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিকেট স্টেডিয়াম উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

Image

তিন উইকেট পতনের পরে রোহিত ও অজিঙ্কা রাহানে ভারতীয় ইনিংস পরিচালনার দায়িত্ব নেন। রোহিত টেস্ট কেরিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি করেন। ১৩০ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছিলেন তিনি। এটি সর্বশেষ ৯ ম্যাচে রোহিতের চতুর্থ সেঞ্চুরি ছিল। ২০১৯ সালের অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে রাঁচিতে তিনি নিজের শেষ সেঞ্চুরি করেছিলেন। এটি চেন্নাইতে তাঁর প্রথম সেঞ্চুরি। চতুর্থবারের মতো টেস্টে রোহিত ১৫০+ রান করেছিলেন। এর আগে, ২০১৩ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে (১৭৭ রান) এবং ২০১৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দু’বার ১৭৬ এবং ২১২ রান করেছিলেন। একইসঙ্গে রাহানে টেস্ট কেরিয়ারের ২৩তম ফিফটি করেছিলেন। তিনি চতুর্থ উইকেটে রোহিতের সঙ্গে ১৬২ রানের জুটি গড়েছিলেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *