জাতীয় ক্রীড়া দিবসে প্যারালিম্পিক্সে ভারতের দু’টি রুপো জয়, তৃতীয় পদক নিয়ে বিতর্ক

সম্রাট মিশ্র

২৯ অগাস্ট। ভারতের জাতীয় ক্রীড়া দিবস। ‘হকির জাদুকর’ মেজর ধ্যানচাঁদের জন্মদিন। আর এই জাতীয় ক্রীড়া দিবসে দেশের মুখ উজ্জ্বল করলেন ভারতীয় প্যারা অ্যাথলেটরা। টোকিও প্যারালিম্পিক্সের পঞ্চম দিনের শেষে ভারতের ঝুলিতে এলো তিন-তিনটি পদক, দু’টি রুপো এবং একটি ব্রোঞ্জ। দিনের শুরুতে টোকিও-তে ভারতের হয়ে পদকের খাতা খুললেন প্যাডলার ভাবিনাবেন প্যাটেল। মহিলাদের টেবিল টেনিসে ক্লাস-৪ বিভাগের ফাইনালে চিনা প্রতিপক্ষ ঝৌ ইং-এর কাছে স্ট্রেট গেমে পরাজিত হয়ে রুপো জয় করেন ভাবিনা। সেইসঙ্গে তিনি প্রথম ভারতীয় প্যাডলার হিসেবে প্যারালিম্পিক্সে পদক জয়ের কৃতিত্ব অর্জন করেন এবং দ্বিতীয় মহিলা ক্রীড়াবিদ হিসেবে প্যারালিম্পিক্সে পদক লাভ করলেন।

আরও পড়ুন: কলকাতায় প্রায় বিস্মৃত একটি খেলা এবং কিছু অস্বস্তিকর প্রশ্ন

দিনের দ্বিতীয় পদক আসে নিশাদ কুমারের থেকে। পুরুষদের হাইজাম্পের টি-৪৭ বিভাগে রুপো জিতলেন তিনি। একুশ বর্ষীয় এই তরুণ অ্যাথলেটের এটাই প্রথম প্যারালিম্পিক্স, আর প্রথমবারেই এলো সাফল্য। হিমাচলপ্রদেশের এই অ্যাথলেটের আট বছর বয়সে ঘটে যায় এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, এই দুর্ঘটনায় তাঁর ডান হাতটি বাদ যায়। এ বছরের শুরুতে কোভিডেও আক্রান্ত হয়েছিলেন। তবে কোনও প্রতিকূলতাই তাঁর সাফল্যে বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি। তিনি ২.০৬ মিটার লাফিয়ে এশিয়ান রেকর্ড গড়েন।

আরও পড়ুন: দু’টি হাত ছাড়াই প্যারালিম্পিকে টেবিল টেনিস প্রতিযোগিতায় এক জীবনযোদ্ধা

এদিনের তৃতীয় পদকটি এলো বিনোদ কুমারের কাছ থেকে। পুরুষদের ডিসকাস থ্রোয়ের এফ-৫২ বিভাগের ফাইনালে ১৯.৯১ মিটার ডিসকাস ছুড়ে ব্রোঞ্জ পদক জয় করেন বিয়াল্লিশ বর্ষীয় বিনোদ কুমার। তাঁর এই থ্রো এশিয়ান রেকর্ড গড়ে দেয়। তবে ব্রোঞ্জ জয়ী বিনোদ কুমারের ফলাফল নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। এই ফলাফলও আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। কিছু দেশ তাঁর ক্লাসিফিকেশন ক্যাটিগরি নিয়ে আপত্তি করেছে, যা এখন তদন্তাধীন। এই কারণে পদক বিতরণ অনুষ্ঠানও ৩০ আগস্ট পর্যন্ত স্থগিত রাখা হয়েছে। গেমস আয়োজকদের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, “এই ফলাফল পর্যালোচনা করা হচ্ছে। এই কারণে, পদক বিতরণ অনুষ্ঠান ৩০ আগস্ট পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।” ভারতের চিফ অব মিশন (চিফ ডে মিশন) গুরশরণ সিং বলেন, “এই পদক এখনও পর্যন্ত ভারতেরই। ইনভেস্টিগেশনের পরেই সবকিছু পরিষ্কার হয়ে যাব।” গুরশরণ আরও বলেন, “আমরা জানি না কতগুলি দেশ আপত্তি জানিয়েছে। আয়োজকরা এ বিষয়ে কোনও তথ্য দেননি। প্যারালিম্পিক গেমস শুরুর আগেও তাঁদের প্রত্যেককেই টেস্ট করা হয়েছে। বিনোদের এই ব্রোঞ্জ বৈধ। সোমবার ফলাফল ঘোষণা করা হতে পারে।”

আরও পড়ুন: বিজ্ঞাপনে বালা দেবী

যদিও, আজকের এই সাফল্যে উচ্ছ্বসিত দেশের ক্রীড়ামহল, দেশের বিভিন্ন স্থানে উৎসবের ছবি দেখা যায়। ভারতের প্যারা অ্যাথলেটদের সাফল্যে শুভেচ্ছার বন্যা বয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। শুভেচ্ছা জানান দেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, প্যারালিম্পিক্স কমিটির প্রধান থেকে শুরু করে দেশের ক্রীড়া অনুরাগীরা। ২০২১-এর জাতীয় ক্রীড়া দিবস ভারতের ক্রীড়া ইতিহাসে স্মরণীয় হয়ে থাকবে, সে-বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। 

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *