Latest News

Popular Posts

অলিম্পিকে পদক জিততেই পারেন ভারতীয় জ্যাভেলিন থ্রোয়ার নীরজ চোপড়া

অলিম্পিকে পদক জিততেই পারেন ভারতীয় জ্যাভেলিন থ্রোয়ার নীরজ চোপড়া

Mysepik Webdesk: টোকিও অলিম্পিকে যদি অ্যাথলেটিক্সের কোনও খেলোয়াড়ের কাছ থেকে কোনও পদকের প্রত্যাশা করা হয়, তবে জ্যাভেলিন নিক্ষেপকারী নীরজ চোপড়ার নাম শীর্ষে আসে। তিনি ২০১৬ সালের জুনিয়র ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন তিনি। ৮৬.৪৮ মিটার থ্রো করে একটি জুনিয়র বিশ্বরেকর্ডও গড়েছিলেন নীরজ। উল্লেখ্য যে, তাঁর এই রেকর্ডটি এখনও অক্ষত। বিশ্বরেকর্ডের পরে ভারতীয় সেনাবাহিনী নীরজকে জুনিয়র কমিশনার অফিসার হিসাবে নিয়োগ করে। এর পরে তাঁকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ২০১৮ এশিয়ান গেমস এবং কমনওয়েলথ গেমসে স্বর্ণপদক জিতেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: ছয় মেরে টি-২০’তে ১৪ হাজার রানের মাইলস্টোন গড়লেন ক্রিস গেইল

নীরজের কাকা ভীম চোপড়া একবার জানিয়েছিলেন যে, নীরজ শুরুতে শারীরিকভাবে অতটা ফিট ছিলেন না। তাই তিনি নিয়মিত জিমে যেতেন। জিমের কাছে একটি স্টেডিয়াম ছিল। হাঁটাপথে তিনি সেখানেও যেতেন। একবার স্টেডিয়ামে গিয়েছিলাম তখন কিছু বাচ্চা জ্যাভলিন শিখছিল। নীরজ সেখানে গিয়ে দাঁড়িয়ে রইল। তখন কোচ নীরজকে বলেন যে, ‘দাঁড়িয়ে আছ কেন? থ্রো করো। দেখি কতদূর ছুড়তে পারো।’ এরপর নীরজ থ্রো করেছিলেন। তাঁর থ্রো এতদূর গিয়ে পড়ে যে অবাক হয়ে যান স্বয়ং কোচও। তার পরে কোচ নিয়মিত প্রশিক্ষণে আসতে বলেছিলেন নীরজকে। কিছুদিন নীরজ পানিপথ স্টেডিয়ামে ট্রেনিং নিয়েছিলেন তিনি। এরপরে পাঁচকুলায় চলে যান এবং সেখানে প্রশিক্ষণ শুরু করেন এই অ্যাথলেট।

আরও পড়ুন: ১৭ বছর বয়সি ভারতীয় ক্রিকেটার শেফালি ভর্মার প্রশংসায় পঞ্চমুখ ব্রিটিশ মিডিয়া

আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ৬টি বড় টুর্নামেন্টে নীরজ স্বর্ণপদক জিতেছেন। তিনি ২০১৮ সালে জাকার্তা এশিয়ান মেমস, গোল্ড কোস্ট কমনওয়েলথ গেমস, ২০১৭ এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ, ২০১৬ সালে দক্ষিণ এশিয়ান গেমস, ২০১৬ সালে জুনিয়র ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণপদক জিতেছেন। ২০১৬ সালে তিনি জুনিয়র এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে রুপোর পদক জিতেছিলেন।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *