শান্তির বাণী নিয়ে টেনিস কোর্টে আবার ইন্দো-পাক জুটির প্রত্যাবর্তন

Rohan

Mysepik Webdesk: সাত বছর পর ইন্দো-পাক এক্সপ্রেস, ভারতের রোহন বোপান্না এবং পাকিস্তানের আইসাম-উল-হক কুরেশির বিখ্যাত জুটি টেনিস কোর্টে ফিরে এসেছেন। একইসঙ্গে এই দুই খেলোয়াড় ‘যুদ্ধ বন্ধ করুন, টেনিস শুরু করুন’ স্লোগান দিয়ে টেনিস কোর্টে শান্তির বার্তা ছড়িয়েও দিচ্ছেন। বুধবার সকালে মেক্সিকোর আকাপুলকোয় এটিপি ৫০০ ইভেন্টের প্রথম রাউন্ডের ম্যাচের আগে উভয় খেলোয়াড়ই ‘স্টপ ওয়ার, স্টার্ট টেনিস’ স্লোগান দিয়ে সমর্থকদের মনজয় করে নিয়েছেন। যদিও ম্যাচ হেরে গিয়েছেন এই ইন্দো-পাক জুটি।

আরও পড়ুন: ডাকাতি হয়েছে বাড়িতে, ম্যাচের মাঝেই মাঠ ছাড়লেন ডি মারিয়া

এদিন তাঁদের প্রতিপক্ষ ছিলেন প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় বাছাই দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের রাষ্ট্র বেলু ওরিজোঁতির ব্রুনো সোয়ারেস এবং ব্রিটিশ খেলোয়াড় জেমি মারে। প্রথম সেটে ৭-৬ (৪) জেতেন ইন্দো-পাক জুটি। যদিও এর পরের দুই সেট ২-৬, ১-১০ (সুপার টাইব্রেকার) ব্যবধানে হেরে যান বোপান্না-কুরেশি জুটি।

কুরেশি ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে ক্রীড়া সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেছেন, “এটা হতাশাজনক যে রাজনৈতিক কারণে খেলাধুলা প্রভাবিত হচ্ছে। আমার কাছে এটা হতাশার বিষয় যে ভারতীয়রা খেলতে পাকিস্তানে আসতে পারে না বা পাকিস্তান ভারতে খেলতে যেতে পারে না।”

আরও পড়ুন: চিরঘুমে কিংবদন্তি বক্সার মারভিন হেগলার

অন্যদিকে, ৪১ বছর বয়সি বোপান্না একটি সুখস্মৃতি স্মরণ করে জানান যে, তিনি কুরেশির বিয়েতে অংশ নিতে সীমান্ত পেরিয়ে গিয়েছিলেন। তিনি বলেন, “বিয়ের অনুষ্ঠানটি দেরি পর্যন্ত চলেছিল। আমি হোটেলে ফিরে যাচ্ছিলাম যখন, হঠাৎ আমাদের একটি চেকপোস্টে থামানো হয়েছিল। পুলিশ সদস্য আমাকে চিনতে পেরেছিল। দু’জন একটি সেলফিও তুলেছিলাম। তখন ভোর ৩টে বেজে গেছে। সেই সময় ওই পুলিশ সদস্য বললেন যে, আসুন এক কাপ চা পান করি। এটি খুব ভালো একটা স্মৃতি।”

তাৎপর্যপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক ক্রীড়া সম্পর্ক কিছু সময়ের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। দুই দেশ দ্বিপাক্ষিক ক্রিকেট সিরিজ শেষবারের মতো জানুয়ারি ২০১৩-তে খেলেছিল। ২০১৯ সালের ডেভিস কাপের ম্যাচ খেলতে ভারতীয় দল ইসলামাবাদ যাবে, এমন আশা করা হয়েছিল। যদিও আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন (আইটিএফ) শেষমেশ নিরপেক্ষ স্থান কাজাখস্তানে ম্যাচটি স্থানান্তরিত করেছিল। তবে আবারও ইন্দো-পাক জুটি টেনিস কোর্টে ফিরে এসে আবারও শান্তির বার্তা দেওয়া শুরু করেছেন।

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *