ব্যারাকে ঢুকে মহিলা কনস্টেবলের শ্লীলতাহানি, ধৃত হোমগার্ড

Mysepik Webdesk: পুলিশের হেডকোয়ার্টারেই মহিলা কনস্টেবলের শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটেছে। শুধু তাই নয়, এই ঘটনার পর ওই মহিলা কনস্টেবল এতটাই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন যে তিনি আত্মহত্যারও চেষ্টা করেন। ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়েছে। ডিউটি থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে ওই অভিযুক্ত হোমগার্ডকে।

আরও পড়ুন: কবে থেকে এরাজ্যে খুলবে স্কুল, জানালেন শিক্ষামন্ত্রী

সূত্রের খবর, ঘটনার দিন রাতে ব্যারাকের পাঁচিল টপকে ভেতরে ঢোকেন অভিযুক্ত হোমগার্ড। এই পঘটনার প্রসঙ্গে মালদহের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হেডকোয়াটার হাসান মেহেদী রহমান জানিয়েছেন এই ধরণের ঘটনা কখনোই বরদাস্ত করা হবে না। অভিযোগ প্রমান হলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জানা গিয়েছে, নির্যাতিতা মহিলা কনস্টেবল কোচবিহারের বাসিন্দা। অভিযুক্ত হোমগার্ডের বাড়ি মালদহের মানিকচকে।

আরও পড়ুন: ১ অক্টোবর থেকে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক স্তরের পরীক্ষা শুরু, দেখে নিন কোন দিন কী পরীক্ষা রয়েছে

জানা গিয়েছে ঘটনার দিন ওই মহিলা কনস্টেবল এবং অভিযুক্ত হোমগার্ড দু’জন্যেই একসঙ্গে ডিউটি সেরে নিজের নিজের ব্যারাকে চলে যান। এরপর মহিলা ব্যারাকের পাঁচিল টপকে দোতালায় মহিলা কনষ্টেবলের ঘরে ঢুকে পড়েন অভিযুক্ত হোমগার্ড। কুঃপ্রস্তাবে আপত্তি জানালে ওই মহিলা কনষ্টেবলের শ্লীলতাহানী করে ওই হোমগার্ড। শুধু তাই নয় বাধা দিতে গেলে দু’জনের মধ্যে ধ্বস্তাধ্বস্তির ঘটনাও ঘটে। এরপরেই অভিযুক্ত পালিয়ে যায়। গোটা ঘটনার কথা জানিয়ে লিখিত অভিযোগ করেন মহিলা কনস্টেবল। মালদহের ডেপুটি পুলিশ সুপার শৃঙ্খলা ও প্রশিক্ষন শুভতোষ সরকার ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব নিয়েছেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *