আইপিএল: দ্বিতীয় ম্যাচে দারুণ জয় মুম্বইয়ের, ম্যাচে হল ছক্কা হাঁকানোর রেকর্ডও

Mysepik Webdesk: মুম্বই ইন্ডিয়ান্স আইপিএল ২০২১ মরশুমে তাদের দ্বিতীয় জয় পেয়েছে। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের নবম ম্যাচে মুম্বই সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ১৩ রানে পরাজিত করেছে। ৩টির ম্যাচের মধ্যে ২টি ম্যাচ জিতে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে পৌঁছেছে মুম্বই। ম্যাচে ছক্কা হাঁকানোর অনেক রেকর্ডও হয়েছে। রোহিত শর্মা আইপিএলে সর্বাধিক ছক্কা হাঁকানো ভারতীয় ক্রিকেটার হিসাবে উঠে এসেছেন। একইসঙ্গে কায়রন পোলার্ড আইপিএলে ২০১টি ছয় হাঁকিয়েছেন বিরাট কোহলির সঙ্গে একাসনে বসেছেন। পোলার্ড শেষ ওভারে দু’টি ছক্কা মেরে ২২ বলে ৩৫ রান করেন। তাঁর ইনিংসটি সাজানো ছিল ১টি চার এবং ৩টি ছয় দিয়ে। ম্যান অফ দ্য ম্যাচও নির্বাচিত হন এই ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত হলেন ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু

শেষের দিকে পোলার্ডের আক্রমণাত্বক ব্যাটিংয়ে ভর করে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫০ রান করে। দলের ওপেনার কুইন্টন ডিকক ৩৯ বলে সর্বোচ্চ ৪০ রান করেছিলেন। অধিনায়ক রোহিত শর্মা ৩২ রান করেন। হায়দরাবাদের হয়ে মুজিব উর রহমান এবং বিজয় শঙ্কর ২টি করে উইকেট শিকার করেন। ম্যাচে ৩২ রানের ইনিংসে রোহিত ২টি ছক্কা মারেন। একইসঙ্গে, তিনি আইপিএলে ২১৭টি ছক্কা হাঁকিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে তালিকায় সবার আগে উঠে এসেছেন। এক্ষেত্রে তিনি মহেন্দ্র সিং ধোনিকে পিছনে ফেলেছেন, যিনি এখনও পর্যন্ত ২১৬টি ছক্কা মেরেছেন। সার্বিকভাবে সর্বোচ্চ ছক্কার ক্ষেত্রে তিন নম্বরে রয়েছেন রোহিত। ক্রিস গেইল ৩৫১টি ছক্কার সাহায্যে শীর্ষে রয়েছেন। ডি ভিলিয়ার্স ২৭৭ ওভার বাউন্ডারি মেরে দ্বিতীয় নম্বরে রয়েছেন।

আরও পড়ুন: যুব বিশ্ব বক্সিং চ্যাম্পিয়নশিপ: কোয়ার্টার ফাইনালে অরুন্ধতী এবং বাবিরোজিসানা

কায়রন পোলার্ড আইপিএলে তাঁর ওভার বাউন্ডারির ডবল হান্ড্রেড পূর্ণ করেছেন। টুর্নামেন্টের ষষ্ঠ ক্রিকেটার হিসাবে তিনি এই কৃতিত্ব অর্জন করেছেন। ক্রিস গেইল সর্বোচ্চ ছক্কার ক্ষেত্রে শীর্ষে রয়েছেন। পোলার্ড এবং বিরাট কোহলি দু’জন একাসনে রইলেও বিরাটের চেয়ে কম ম্যাচ খেলে বল আকাশপথে বাউন্ডারি লাইন পার করেছেন পোলার্ড। ২০১টি ছয় হাঁকাতে বিরাট নিয়েছেন ১৯৪ ম্যাচ, সেক্ষেত্রে পোলার্ড এই কৃতিত্ব অর্জন করেছেন ১৬৭ ম্যাচে। পোলার্ড একটি ১০৫ মিটার দীর্ঘ ছক্কা মারেন, যা এই মরশুমে আপাতত দীর্ঘতম ছয়। ১৬তম ওভারের প্রথম বলে এই ছক্কা মারেন। ওভারটি ছিল মুজিব উর রহমানের।

আরও পড়ুন: এশিয়ান রেসলিং চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথমবার পদক জিতলেন ভিনেশ ফোগাট এবং অংশু মালিক

উল্লেখ্য যে, রান তাড়া করতে নেমে হায়দরাবাদের ইনিংস ১৯.৪ ওভারে ১৩৭ রানে শেষ হয়ে যায়। জসপ্রীত বুমরাহ মুম্বইয়ের সবচেয়ে কৃপণ বোলার ছিলেন। তিনি ৪ ওভারে মাত্র ১৪ রান দিয়ে ১টি উইকেট শিকার করেন। ট্রেন্ট বোল্ট নেন ৩ উইকেট। রাহুল চাহার উইকেটে তাঁর ভেল্কি দেখিয়ে ৪ ওভারে ১৯ রান দিয়ে ৩টি উইকেট ঝুলিতে পোরেন। আরও একটি উইকেট নেন ক্রুনাল পান্ডিয়া। ডেভিড ওয়ার্নার ৩৪ বলে ৩৬ রান করে হার্দিক পান্ডিয়ার অনবদ্য থ্রোয়ে রান আউট হয়ে যান। জনি বেয়ারস্টো ২২ বলে ৪৩ রানে দুর্ভাগ্যজনক হিট উইকেট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। শেষের দিকে বিজয় শঙ্কর ২৫ বলে ২৮ রান করে ম্যাচ জেতাতে চেষ্টা করলেও সফল হননি। 

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *