আইপিএল: ছন্দে থাকা দিল্লিকে হারিয়ে দিল কলকাতা

KKR

Mysepik Webdesk: আইপিএলে আজ ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স বনাম দিল্লি ক্যাপিটালসের মধ্যে মেগা ম্যাচ। কেকেআর টস জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। অধিনায়ক মর্গ্যানের এই সিদ্ধান্ত সঠিক প্রমাণিত হয়। কেকেআর বোলাররা অসাধারণ বোলিং করে দিল্লিকে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১২৭ রানের বেশি এগোতে দেননি। শিখর ধাওয়ান এবং স্টিভ স্মিথ প্রথম উইকেটে ৩৫ রান যোগ করেন। ধাওয়ান (২৪)-কে যথেষ্ট ছন্দে দেখা গেলেও লকি ফার্গুসনের বলে তিনি ভেঙ্কটেশ আইয়ারের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। আউট হওয়ার আগে অরেঞ্জ ক্যাপ আরও একবার শিখরে পৌঁছেছে। এখন পর্যন্ত গব্বার ৪৫৪ রান করেছেন। শিখরের উইকেটের পর শ্রেয়াস আইয়ার (১)-এর ম্যাজিকও আজ দেখা যায়নি। সুনীল নারাইন তাঁকে বোল্ড করে প্যাভিলিয়নের পথ দেখান।

আরও পড়ুন: স্পট ফিক্সিং-কাণ্ডে নীরবতা ভেঙে বিস্ফোরক শ্রীসন্থ

এরপর ফার্গুসনের শিকার স্টিভ স্মিথ। ব্যক্তিগত ৩৯ রানের মাথায় তিনি ক্লিন বোল্ড হন। স্মিথের উইকেটের পর দিল্লি দ্রুত শিমরন হেটমায়ার (৪) এবং ললিত যাদব (0)-এর উইকেট হারায়। ৮৯ রানের মধ্যে পাঁচ-পাঁচটি উইকেট হারায় দিল্লি। অক্ষর প্যাটেলও এদিন ব্যাটিংয়ে কার্যকরী ভূমিকা নিতে ব্যর্থ হন। কোনও রান না করেই সাজঘরে ফেরেন তিনি। অধিনায়ক ঋষভ পন্থ ১৯তম ওভারের দ্বিতীয় বলে রান আউট হয়ে যান। এদিন দিল্লি দলনায়কের সংগ্রহ ৩৬ বলে ৩৯। কলকাতার পক্ষে সুনীল নারাইন, ভেঙ্কটেশ আইয়ার এবং লকি ফার্গুসন ২টি করে উইকেট সংগ্রহ করেন। একটি উইকেট পান টিম সাউদি।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক ইনজামাম-উল-হক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হাসপাতালে

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দলগত ২৮ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায় কলকাতা। ভেঙ্কটেশ আইয়ার ব্যক্তিগত ১৪ রানে ললিত যাদবের বলে বোল্ড হয়ে যান। এরপর ৪৩ রানের মাথায় কেকেআর তাদের দ্বিতীয় উইকেট খোয়ায়। ৯ রানে আউট হন রাহুল ত্রিপাঠী। তাঁকে প্যাভিলিয়নের রাস্তা দেখান আবেশ খান। কলকাতা দলে ২টি পরিবর্তন এনেছিল। চোটপ্রাপ্ত আন্দ্রে রাসেলের জায়গায় দলে আসেন প্রশান্ত কৃষ্ণ। সন্দীপ ওয়ারিয়ারের স্থলাভিষিক্ত হন টিম সাউদি। একইসঙ্গে আহত পৃথ্বী শ-এর জায়গায় দিল্লি স্টিভ স্মিথকে প্লেয়িং ইলেভেনে সুযোগ দিয়েছিল।

এদিন ৩০ রান করলেও ওই রংটুকু করতে ৩৩টি বল খেলেন কলকাতার আরেক ওপেনার শুভমান গিল। কাগিসো রাবাডাকে পুল করে বাউন্ডারির বাইরে ফেলতে গিয়ে শ্রেয়স আইয়ারের হাতে জমা পড়েন তিনি। পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ব্যর্থ হন কেকেআর অধিনায়ক মর্গ্যান। অশ্বিনের বলে ললিত যাদবের হাতে ক্যাচ দিয়ে শুভমানের ঠিক পরেই সাজঘরে ফেরেন তিনি। কলকাতার রান তখন ৪ উইকেটে ৬৭। এরপর স্বাভাবিক ছন্দে ব্যাটিং করতে থাকেন নীতীশ রানা। যদিও এরমধ্যে দীনেশ কার্তিক ১২ রানের মাথায় আউট হয়ে যান। তাঁর পর সুনীল নারাইন নেমে উইকেটে ঝড় তোলেন। ১০ বলে ২১ রানের ইনিংস খেলে আউট হন, তখন কেকেআর অনেকটাই সুরক্ষিত। শেষমেশ ১০ বল বাকি থাকতেই ৩ উইকেটে ম্যাচ জিতে নেয় কলকাতা নাইট রাইডার্স।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *