আইপিএল: মহারাষ্ট্রে দ্রুতহারে ছড়িয়ে পড়া করোনা মাথাব্যথার কারণ বিসিসিআইয়ের

BCCI IPL

Mysepik Webdesk: দোরগোড়ায় আইপিএল। তবে ১৪তম আইপিএলের আসর শুরুর আগে বাধ সাধছে করোনা। বিবিসিসিআই এবং আইপিএল স্টিয়ারিং কমিটি দেশে যেভাবে কোভিড সংক্রমণ দ্রুতহারে বাড়ছে, তা নিয়ে উদ্বিগ্ন। ভারতে এই মারণ ভাইরাসের সর্বাধিক সংখ্যক মামলা মহারাষ্ট্র থেকে আসছে। তার ওপর মুম্বই শহর করোনাভাইরাসের হটস্পট হিসাবে চিহ্নিত হয়েছে।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত দিল্লি ক্যাপিটালসের অলরাউন্ডার অক্ষর প্যাটেল

এমন পরিস্থিতিতে লিগের সঙ্গে জড়িত সমস্ত কর্মকর্তা মুম্বইয়ে অনুষ্ঠিত ম্যাচগুলি সম্পর্কে সতর্ক রয়েছেন। শনিবার, যখন জানা গিয়েছিল যে, কোভিড-১৯’এর পরীক্ষার পর ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামের ৮ জন গ্রাউন্ড ওয়ার্কার এবং দিল্লি ক্যাপিটালসের অলরাউন্ডার অক্ষর প্যাটেল করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, তখন স্বাভাবিকভাবেই সবার উদ্বেগ বেড়েছে। এদিকে, বিসিসিআই জানিয়েছে― এই বিষয়গুলির ওপর তারা নজর রাখছে এবং প্রয়োজন হলে তারা মুম্বইয়ের ম্যাচগুলি হায়দরাবাদে স্থানান্তর করতেও প্রস্তুত।

চলতি মরশুমে বিসিসিআই দেশের ৬টি শহরে আইপিএল আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মুম্বাই এই ৬টি শহরের মধ্যে একটি। মুম্বই ছাড়াও এই ম্যাচগুলি চেন্নাই, আহমদাবাদ, দিল্লি, বেঙ্গালুরু এবং কলকাতায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। তবে মহারাষ্ট্রে দ্রুত ছড়িয়ে পড়া করোনা আইপিএল পরিচালনার ক্ষেত্রে বড় মাথাব্যথার কারণ বলে মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল।

আরও পড়ুন: আইপিএলের আগেই দুঃসংবাদ, ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামের ৮ গ্রাউন্ড স্টাফ করোনা আক্রান্ত

https://twitter.com/COVIDNewsByMIB/status/1378207720969543683?s=20

মহারাষ্ট্রে প্রতিদিন গড়ে ৪০,০০০-এরও বেশি কেস রিপোর্ট করা হচ্ছে। বিসিসিআই স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে, তারা ইতিমধ্যে ব্যাকআপ পরিকল্পনা প্রস্তুত রেখেছে। প্রয়োজনে এটি মুম্বাইয়ের সমস্ত ম্যাচ হায়দরাবাদে স্থানান্তরিত করবে। এর আগে শুক্রবার মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে শুক্রবার এমন ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে, রাজ্যে যদি পরিস্থিতির উন্নতি না হয়, তবে তিনি গোটা রাজ্যেই পূর্ণ লকডাউন চালু করতে পারেন।

তিনি বলেছিল, “আমি রাজ্যে পূর্ণ লকডাউনের ইঙ্গিত দিচ্ছি। তবে আমি এখনই তেমন ঘোষণা করছি না। যদি পরের এক-দু’দিনে পরিস্থিতির উন্নতি না হয় বা কোনও সমাধান মেলে তবে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় যেমন ঘটছে, তেমনই আমাদেরও আরও একবার লকডাউন ঘোষণা করতে হবে।”

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *