লেফন্ড্রের ডাবলে শীর্ষে মুম্বই, টানা দ্বিতীয় হার ইস্টবেঙ্গলের

Mysepik Webdesk: প্রথম ম্যাচে নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেডের কাছে হেরে মুম্বই দ্বিতীয় ম্যাচে প্রায় ৭০ মিনিট ১০ জনে খেলে এফসি গোয়াকে হারিয়েছিল। এই মুম্বই এখন ছয় পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে প্রথম অবস্থানে পৌঁছেছে। অন্যদিকে, এসসি ইস্টবেঙ্গল, প্রথমবারের মতো আইএসএলে খেলতে গিয়ে তাদের টানা দ্বিতীয় পরাজয়ের মুখোমুখি হয়েছে। প্রথম ম্যাচে তারা কলকাতা ডার্বিতে সবুজ মেরুন ব্রিগেডের কাছে হেরে গিয়েছিল। লাল হলুদ বাহিনী এখন ১১টি দলের তালিকায় সবার নীচে রয়েছে। মুম্বইয়ের হয়ে তার তৃতীয় ম্যাচে অ্যাডাম লেফন্ড্রে ২০ মিনিটে প্রথম এবং ৪৮ মিনিটে পেনাল্টিতে দ্বিতীয় গোল করেন। তিনি ছাড়াও হেরানান ড্যানিয়েল সান্টানা ৫৮ মিনিটে মুম্বই সিটির হয়ে তৃতীয় গোলটি করেন।

আরও পড়ুন: সত্যজিৎ ঘোষ: ফ্ল্যাশব্যাকে আশির দশকের কলকাতা ফুটবল দুনিয়া

ম্যাচের শুরুটাই ছিল ইস্টবেঙ্গলের পক্ষে হতাশাজনক। দ্বিতীয় মিনিটেই ইস্টবেঙ্গল অধিনায়ক ড্যানিয়েল ফক্স চোট পান। চিকিৎসার পরে ফক্স খেলা চালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন, কিন্তু পারেননি। সপ্তম মিনিটে ফক্সকে তুলে নিতে বাধ্য হন লাল হলুদ কোচ। ইস্টবেঙ্গল অধিনায়কের জায়গায় মাঠে বদলি হিসাবে নামেন মহম্মদ রফিক। এই সমস্ত কিছুর সুযোগ নিয়ে মুম্বই নবম মিনিটে দুর্দান্ত এক আক্রমণ শানায়। তবে ইস্টবেঙ্গল গোলরক্ষক দেবজিৎ মজুমদার এক্ষেত্রে সজাগ ছিলেন।

আরও পড়ুন: পুরুষদের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রথম মহিলা রেফারিকে দেখা যাবে

ম্যাচের ২০ মিনিটে পরিবর্ত হিসাবে মাঠে রফিক গোল করার মতো পরিস্থিতি তৈরি করেছিলেন। মুম্বইয়ের গোলরক্ষক অমরিন্দর সিং গোলের সেই সুযোগকে নির্বিষ করেন। পাল্টা আক্রমণে ওই ২০ মিনিটেই লেফন্ড্রে গোল করে মুম্বইকে ১-০ গোলে এগিয়ে দেন। এরপর ৩৪ মিনিটে বলবন্ত সিং এবং রফিক একটি যৌথ প্রচেষ্টায় ইস্টবেঙ্গলের হয়ে গোলের অ্যাকাউন্ট খোলার চেষ্টা করেছিলেন। এবারও অমরিন্দর সতর্ক ছিলেন। এর পর দুই দলই পরের ১৭ মিনিটের জন্য গোলের জন্য লড়াই করেছিল। কিন্তু কোনও দলই গোল করতে পারেনি। প্রথমার্ধ শেষ হয় মুম্বইয়ের পক্ষে ১-০ গোলে।

আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত তিরন্দাজ কপিল

আইএসএলে প্রথম সাফল্যের সন্ধানে খেলতে নামা ইস্টবেঙ্গল প্রথমার্ধের শুরুতে তাদের অধিনায়ককে হারিয়ে বিপাকে পড়েছিল, আর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে তাদের বিপক্ষে পেনাল্টি কলকাতার মশাল বাহিনীকে আরও বিপাকে ফেলে দেয়। ৪৮ মিনিটে গোলরক্ষক দেবজিৎ হুগো বোমোসকে পেনাল্টি বক্সে ফেলে দিলে রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত নেন। মুম্বই সুযোগটি হাতছাড়া করেনি। স্কোরলাইন মুম্বইয়ের পক্ষে ২-০ হয়। পেনাল্টিতে লেফন্ড্রে তাঁর মরশুমের দ্বিতীয় গোলটি করেন।

আরও পড়ুন: এই তরুণ মিডফিল্ডার ভারতীয় হকি দলের নির্ভরযোগ্য খেলোয়াড় হতে চান

৫৮ মিনিটে মুম্বইয়ের হয়ে হেরানান ড্যানিয়েল সান্টানা স্কোরলাইন ৩-০ করে ইস্টবেঙ্গলের পক্ষে বিপদ আরও বাড়িয়ে তোলেন। মুম্বইয়ের মন্দার রাও দেশাই, ৬২ মিনিটে আইএসএলে নিজের শততম ম্যাচটি খেলতে নেমে হলুদ কার্ড দেখেন, যা ম্যাচের মুম্বইয়ের পক্ষে পঞ্চম হলুদ কার্ড ছিল। ৬৭ মিনিটে, ইস্টবেঙ্গলের জেজে লালপেখলুয়া ৬৪২ দিন পর আইএসএলে কোনও ম্যাচে মাঠে নামেন। তবে চেনা ছন্দে পাওয়া যায়নি তাঁকে। বলা যায়, এই ম্যাচে ইস্টবেঙ্গলকে হারাতে খুব একটা বেগ পেতে হয়নি মুম্বইয়কে।

ছবি সৌজন্য আইএসএল

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *