২৩ মে থেকে নিউটাউনের ফ্ল্যাটেই থাকত জয়পাল, চাঞ্চল্যকর তথ্য জানাল পুলিশ

Mysepik Webdesk: নিউটাউনের সাপুরজি আবাসনের ভেতর বুধবার শ্যুটআউটের ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে দাগী অপরাধী জয়পাল সিং ভুল্লার। কিন্তু কীভাবে পঞ্জাবের ওই অপরাধী কলকাতায় এসে পৌঁছেছে? তার কলকাতায় আসার কারণ অনুসন্ধানে নেমে চাঞ্চল্যকর তথ্য এসেছে তদন্তকারী আধিকারিকদের হাতে। পুলিশ জানিয়েছে, আগে থেকেই রীতিমতো ছক কষে সে গা ঢাকা দিতেই কলকাতায় এসে পৌঁছেছে। পাশাপাশি তার অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল কলকাতায় গোপনে বেআইনি অস্ত্র ব্যবসা চালানো।

আরও পড়ুন: কিংবদন্তি চলচ্চিত্র নির্মাতা বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের প্রয়াণ

পুলিশ জানিয়েছে, জয়পালকে সারা দেশের পুলিশ খুঁজছে। তার মাথার দাম দশ লক্ষ টাকা। গত ২৩ মে নিউটাউনের এই আবাসনে ফ্ল্যাট ভাড়া নেয় জয়পাল। কলকাতার নিউটাউনে ওই ফ্ল্যাটটি তাকে ভাড়া দেয় সিআইডি রোডের ইন্টেরিয়ার ডিজাইনার। একজন ব্রোকারের মাধ্যমে ওই ফ্ল্যাটটি সে অগ্রিম ২০ হাজার টাকা ও মাসিক ১০ হাজার টাকায় ভাড়া নেয়। শুধু তাই নয়, ব্রোকারকে সে জানিয়েছিল, সাপুরজি আবাসনের তার দুই বেড রুমের ফ্ল্যাট দরকার। ওই ব্রোকারের কাছ থেকেই জয়পাল ফ্ল্যাটের মালিকের ফোন নম্বর নিয়ে ফ্ল্যাটটি ভাড়া নেয়। জয়পালের ধারণা সাপুরজি আবাসনের ২০ হাজার বাসিন্দাদের মধ্যে সে সহজেই ভিড়ে গা ঢাকা দিয়ে থাকতে পারবে। তাছাড়া ধরা পড়ে গেলেও আবাসনে বাসিন্দাদের ভিড়ের জন্য পুলিশের পক্ষে এনকাউন্টার করাও শক্ত হবে।

আরও পড়ুন: ভ্যাকসিন জনগণের টাকায় না বিজেপির টাকায় দেওয়া হচ্ছে? প্রশ্ন মমতার

তদন্তে নেমে পুলিশ ওই ফ্ল্যাটের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে খতিয়ে দেখে জানতে পেরেছে, সে কোথায়, কখন ঘর থেকে বেরতো, কার কার সঙ্গে দেখা করত, কখন ফ্ল্যাটে ঢুকত। তবে রাজপালের ফ্ল্যাটে সেভাবে কাউকেই ঢোকার অনুমতি ছিল না। কাউকে সেভাবে ফ্ল্যাটে ঢুকতেও দেখা যায়নি, শুধুমাত্র খাবার ডেলিভারি বয় ছাড়া। ফুটেজে দেখা গিয়েছে, খাবার ডেলিভারি করতে আসা ডেলিভারি বয়কেও বেশিরভাগ সময় ফ্ল্যাটের বাইরে থেকে কিংবা বিল্ডিঙের নিচ থেকেই খাবার নিয়ে বিদেয় করে দেওয়া হত। প্রসঙ্গত, গতকাল দুপুরে দিনের আলোয় নিউটাউনের সাপুরজি কমপ্লেক্সে অপারেশন চালায় রাজ্য পুলিশের বিশেষ বাহিনী। পঞ্জাব পুলিশের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তৎক্ষণাৎ ব্যবস্থা নেন বিনীত গোয়েল। পুলিশের এনকাউন্টারে খতম হয় কুখ্যাত অপরাধী জয়পাল সিং ভুল্লার।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *