Latest News

Popular Posts

বিজেপি ছাড়তে চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন জয় ব্যানার্জী

বিজেপি ছাড়তে চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন জয় ব্যানার্জী

Mysepik Webdesk: অনেকদিন ধরেই বেসুরো গাইছিলেন বিজেপি নেতা জয় ব্যানার্জী। এবার বিজেপি ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েই ফেললেন। সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি লিখে তার অনুমতিও চেয়েছেন তিনি। নিজের সিদ্ধান্ত জানানোর পাশাপাশি তিনি রাজ্য বিজেপি নেতাদেরও একহাত নিয়েছেন। চিঠিতে তাঁর অভিযোগ, তাঁকে দলের অন্দরে উপেক্ষা করা হচ্ছে। গত দু’বছর ধরে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চাইলেও তাঁকে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না।

আরও পড়ুন: সুব্রতদার প্রয়াণে শোকাহত, ভাইফোঁটার অনুষ্ঠান বাতিল মমতার বাড়িতে

এদিন তিনি চিঠিতে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়েও একগুচ্ছ অভিযোগ জানান। তাঁর অভিযোগ, দলে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় যোগ দেওয়ার পর থেকে তাঁকে উপেক্ষা করা হচ্ছে। চিঠিতে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দীপাবলির শুভেচ্ছা জানিয়ে লেখেন, “আমি বিগত দুই বছর ধরে আপনার সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছিলাম। অসুস্থতার জন্য আমি আপনাকে বেশ কয়েকবার মেল এবং চিঠি মারফত মেডিক্যাল ফান্ড চেয়েছিলাম, কিন্তু পাইনি। ২০১৭ সালে আপনি আমাকে ন্যাশানাল এগজিকিউটিভ মেম্বার করেছিলেন, কিন্তু আমাকে সেই পদ না দিয়ে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিয়ে দেওয়া হয়, এখন যিনি বিজেপির গালে থাপ্পড় মেরে তৃণমূলেই ফিরে গিয়েছেন।”

আরও পড়ুন: ভাইফোঁটার দিনেই শহরে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে মৃত স্কুটি চালক

তিনি আরও লেখেন, “২০১৪ সালে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই আমি দলের জন্য পরিশ্রম করে এসেছি। বিজেপি ও আপনার প্রচার করেছি। এই প্রচারের জন্য আমাকে সমাজবিরোধীদের হাতে মার্ খেতেও হয়েছে। শুধু তাই নয়, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে আমার নিরাপত্তারক্ষীও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। আমাকে অবহেলা করা হচ্ছে। ২০১৭ সালেও আমি আপনাকে এই বিষয়ে কলাইকুণ্ডা বিমানবন্দরে জানিয়েছিলাম। এর ১০ দিন পরই আপনি আমাকে ন্যাশনাল এগজিকিউটিভ মেম্বার করেছিলেন। স্যার আপনার অনুমতি নিয়ে আমি খুব শীঘ্রই বিজেপি ছাড়তে চলেছি। আমাকে দয়া করে অনুমতি দিন।”

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন। https://www.facebook.com/mysepik

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *