‘সাবালকরা মানুষের গ্রাস কেড়ে নিয়েছে বলেই নাবালককে আসতে হয়েছে!’ শুভেন্দুকে কড়া জবাব অভিষেকের

Mysepik Webdesk: তৃণমূল নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী গতকাল ‘নাবালক’ বলে কটাক্ষ করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, “নাবালক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্যের কোনও প্রতিক্রিয়া দেব না।” তার ২৪ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই এবার পাল্টা জবাব দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন পূর্ব মেদিনীপুরের তাজপুরে ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত সমুদ্রতটে দাঁড়িয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, “সাবালকরা এতদিন ধরে কোনও কাজ করেনি, মানুষের মুখের গ্রাস কেড়ে নিয়েছে বলেই নাবালককে এখন আসতে হয়েছে। সেচমন্ত্রী কে ছিলেন, তা সবাই জানেন। মুখ্যমন্ত্রী তো বলেছেন, সব তদন্ত হবে। আর আমি নিশ্চিন্ত যে তদন্ত হলেই কেঁচো খুঁড়তে কেউটে বেরবে।”

আরও পড়ুন: নিজের মেয়ের মাথা কেটে খুন করেও নির্বিকার মানসিক ভারসাম্যহীন মা

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এহেন মন্তব্য স্বাভাবিকভাবেই চাপে ফেলবে বিজেপি নেতৃত্বকে, একথা মনে করছেন তাবড় তাবড় রাজনীতিবিদরা। তাঁর এদিনের কথাতেই স্পষ্ট বোঝা গিয়েছে, আগামী দিনে একদা রাজ্য সরকারের সেচমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী আর দিঘা-শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের সভাপতি শিশির অধিকারীর ভূমিকা এবার যে আতস কাঁচের তলায় পড়তে চলেছে। আর এটা যে নিশ্চিতভাবে আগামী দিনে ঘটতে চলেছে, তা আরও একবার স্পষ্ট করলেন তিনি।

আরও পড়ুন: বিপর্যয় মোকাবিলা আইনে মোদি-শাহকে শোকজ করা উচিত: অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

এদিন পূর্ব মেদিনীপুরে ইয়াস বিধ্বস্ত এলাকা পরিদর্শনে গিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ তিনি তাজপুরে নদীবাঁধ পরিদর্শন করেন। তিনি জানান, “আগামী ৯/১০ তারিখের মধ্যেই ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ক্ষতিপূরণের টাকা। পৌঁছে যাবে।” এদিন নদীবাঁধের অবস্থা দেখে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি। পাশাপাশি দুর্গতদের আশ্বস্ত করে জানান, প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্যা কবলিত মানুষের জন্য সবরকম সাহায্য করা হবে। এদিন তাঁর সঙ্গে ছিলেন রামনগরের বিধায়ক এবং মৎস্যমন্ত্রী অখিল গিরি। তিনিও ক্ষতিগ্রস্থদের সঙ্গে কথা বলেন। সাহায্যের আশ্বাস দেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *