খাগড়াগড় মামলায় কওসরের ২৯ বছরের কারাদণ্ড ঘোষণা

Mysepik Webdesk: খাগড়াগড় বিস্ফোরণকাণ্ডের সাজা ঘোষণা করল এনআইএ আদালত। বুধবার ওই ঘটনার মূল অভিযুক্ত কওসরের ২৯ বছরের জেলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিন অভিযুক্তের রাষ্ট্রদ্রোহিতা-সহ একাধিক মামলায় আইপিসি সেকশন ১২০-১২৫ সেকশন ১৬, ১৮, ২০ ইউএপিএ সেকশন ২৫ -এ অস্ত্র আইন, সেকশন ১৪ ফরেনার্স অ্যাক্ট -এর আওতায় সাজা ঘোষণা করে এনআইএ বিশেষ আদালত। এই নিয়ে খাগড়াগড় বিস্ফোরণকাণ্ডে মোট ৩১ জনের সাজা ঘোষণা হল।

আরও পড়ুন: বিজেপি নেতারা কী জগন্নাথ-বলরাম-সুভদ্রার থেকেও বড়? রায়গঞ্জের জনসভা থেকে তোপ মুখ্যমন্ত্রীর

নিতান্তই সাদামাঠা চেহারার ওই যুবক কওসরের নাম জড়িয়েছিল বুদ্ধগয়া বিস্ফোরণকাণ্ডেও। সেই ঘটনার পর ২০১৮ সালের অগাস্টে তাকে একবার গ্রেফতারও করা হয়। জেরার মুখে কওসর ওরফে বোমা মিজান জানিয়েছে, বিস্ফোরণের পর দীর্ঘদিন ধরে দক্ষিণ ভারতের বিভিন্ন জায়গায় ঘোরে সে। কখনও কলের মিস্ত্রি, কখনও বা কারিগর সেজে। বেশ কিছুদিন ধরেই পশ্চিমবঙ্গ ও অসমকে কেন্দ্র করে জেহাদের প্রস্তুতি চালাচ্ছিল জেএমবি জঙ্গি নেতা কওসর।

আরও পড়ুন: স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে ১৫-২০ শতাংশ রেট বাড়ানোর সিদ্ধান্ত

Image result for khagragarh blast

ঘটনার সূত্রপাত ২০১৪ সালে। ওই বছরের ২ অক্টোবর বর্ধমানের খাগড়াগড়ে দুর্গাপুজোর অষ্টমীর দিনে একটি বাড়িতে প্রবল বিস্ফোরণ হয়। ওই বিস্ফোরণের ফলে দু’জনের মৃত্যু হয়। এর পরেই নড়েচড়ে বসে স্থানীয় পুলিশ। বিস্ফোরণের ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ৫৫টি ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস, আরডিএক্স ও কয়েকটি সিম কার্ড উদ্ধার করে। ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, নিছক এই ঘটনার জাল বিস্তৃত বহুদূর পর্যন্ত। তদন্তে উঠে আসে হাতকাটা সোহেল মাহফুজ ও সাকিল গাজি-সহ একাধিক জেএমবি নেতার নাম। গ্রেফতার করা হয় অভিযুক্ত ৩১ জনকে। তাদের মধ্যে ১৯ জন অপরাধ স্বীকার করে। ওই ঘটনার প্রায় সাড়ে ছ’বছরের মাথায় সাজা হয় মূল অভিযুক্ত কওসরের।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *