জিতল ভবানীপুর, এবার খেলা মহমেডান স্পোটিংয়ের

Yubabharati

Mysepik Webdesk: আজ ভারতীয় ফুটবলের এক উল্লেখযোগ্য দিন। করোনার কারণে দীর্ঘ সাত মাস ময়দান থেকে দূরে ছিল ভারতীয় ফুটবল। অবশেষে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর বল বল গড়ালো ভারতীয় ফুটবলে। এদিন আই লিগ যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচে মুখোমুখি হয় কলকাতার ভবানীপুর এফসি বনাম এফসি বেঙ্গালুরু ইউনাইটেড। প্রথমার্ধে বেঙ্গালুরুর দলটি যথেষ্ট আধিপত্য নিয়ে খেলে। ৬৫ শতাংশ বল তাদের দখলে ছিল। গোল মুখে তারা শট নিয়েছিল ৬টি। অন্যদিকে, ভবানীপুর গোল মুখে মাত্র দু’টি শট নিতে পেরেছিল। তবে বিরতিতে যাওয়ার আগে কাজের কাজটি করেন ভবানীপুরের পঙ্কজ মৌলা। ভবানীপুরকে প্রথমার্ধের অতিরিক্ত মিনিটে এগিয়ে দেন তিনি। ১-০ গোলে লিড নিয়ে প্রথমার্ধের খেলা শেষ করেন শঙ্করলাল চক্রবর্তীর ছেলেরা।

আরও পড়ুন: ১৮ তারিখ শোভাযাত্রার মাধ্যমে সবুজ মেরুন ক্লাব তাঁবুতে ঢুকছে আই লিগ ট্রফি, মানতে হবে করোনাবিধি

এই ম্যাচটি আরও একটি কারণে গুরুত্বপূর্ণ। মোহনবাগানের জার্সিতে এক যুগেরও বেশি সময় খেলা শিল্টন পাল এদিন দস্তানা হাতে ভবানীপুর ক্লাবের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেললেন। তাঁকে বেশ আত্মবিশ্বাসী ও লাগছিল। কলকাতার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে বেলা সাড়ে বারোটার সময় শুরু হয় ম্যাচ। ম্যাচটিতে দর্শকদের প্রবেশে অনুমতি দেওয়া হয়নি। খেলা সম্প্রচারিত হয়েছিল আই লিগের ফেসবুক পেজে। দ্বিতীয়ার্ধে ভবানীপুরকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন আদজা।

এই ম্যাচে শেষপর্যন্ত এই ঐতিহাসিক ম্যাচটি ভবানীপুর ২-০ ব্যবধানেই জয়ী হয়। এদিন খেলাটি ফেডারেশনের সোশ্যাল মিডিয়ায় পেজে লাইভ সম্প্রচারিত হয় এবং তা সাড়ে পাঁচ হাজারের বেশি মানুষ লাইভ দেখেন। বোঝাই যাচ্ছে ম্যাচ ঘিরে ফুটবলপ্রেমীদের মনে উৎসাহ ছিল প্রশ্নাতীত। বিকেল সাড়ে চারটায় মহামেডান স্পোর্টিংয়ের মুখোমুখি হবে গারোয়াল এফসি।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *