প্রেমিকের সঙ্গে মিলে স্বামীকে খুন, ফের মনুয়াকাণ্ডের ছায়া হাওড়ায়

Mysepik Webdesk: মনুয়াকাণ্ডের মতো ফের একই ঘটনা ঘটল। এবারের ঘটনাস্থল হাওড়ার লিলুয়া থানার ভট্টনগরের সুকান্তপল্লি এলাকা। প্রেমিকের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে স্বামীকে খুন করার অভিযোগ উঠেছে মৃত সঞ্জয় হাজরার (৩৮) স্ত্রী মৌসুমী ও তার প্রেমিক বিরজু দাসের বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই খুনের ঘটনাটির তদন্তে নেমেছে লিলুয়া থানার পুলিশ। ঘটনার পরেই মৌসুমী ও তার প্রেমিক বিরজু পলাতক। তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে পুলিশ। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: জ্বরে ভুগে ফের মালদা মেডিকেল কলেজে শিশু মৃত্যু

পেশায় লেদ কারখানার শ্রমিক সঞ্জয় হাজরা বিয়ে করেন মৌসুমীকে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, কিন্তু বেশ কয়েক বছর ধরে মৌসুমী বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন পেশায় কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কের অ্যাম্বুল্যান্স চালক বিরজু দাসের সঙ্গে। সঞ্জয় হাজরার দাদা সংবাদমাধ্যমের কাছে দাবি করেন, বহু বছর ধরে বিরজুর সঙ্গে পরকীয়ায় লিপ্ত ছিলেন ওই মহিলা। এমনকি প্রেমের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ালে মৌসুমী তার শাশুড়িকেও বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন।

আরও পড়ুন: বাবুল সুপ্রিয়র তৃণমূলে যোগ দেওয়া প্রসঙ্গে চাঞ্চল্যকর মন্তব্য অধীর চৌধুরীর

স্থানীয় সূত্রে খবর, শনিবার বিকেলে ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখা যায় সঞ্জয়কে। রক্তে ভেসে যাচ্ছে মেঝে। সেই সময় মৌসুমীই প্রতিবেশীদের ডেকে নিয়ে আসেন। ওই ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যেই স্থানীয় বাসিন্দা বিরজু দাস অ্যাম্বুল্যান্স নিয়ে বাড়ির সামনে হাজির হন। তারা দু’জন্যেই মৃত সঞ্জয় হাজরাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। এই ঘটনার পর থেকেই পলাতক মৌসুমী ও বিরজু। মৃতদেশের পাশে একটি রক্তমাখা কাঁসর উদ্ধার করেছে পুলিশ। পুলিশের ধারণা, সম্ভবত ওই কাঁসর দিয়েই খুন করা হয়েছে সঞ্জয়কে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *