সেয়ানে সেয়ানে কেকেআর বনাম মুম্বই ইন্ডিয়ন্স

Mysepik Webdesk: আইপিএলের ১৩তম আসরের পঞ্চম ম্যাচটি আবু ধাবিতে আজ কলকাতা নাইট রাইডার্স এবং মুম্বই ইন্ডিয়ন্সের মধ্যে হবে। মুম্বই এই মাঠে এখনও পর্যন্ত দু’টি ম্যাচ খেলেছে এবং দু’টিতেই হেরেছে। এখানে রোহিত শর্মারা এই মরশুমের উদ্বোধনী ম্যাচ খেলেছিল। চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে ৫ উইকেটে তারা প্রথম ম্যাচে পরাজিত হয়েছিল। এর আগে ২০১৪ সালে কেকেআর তাদের ৪১ রানে হারিয়ে দিয়েছিল।

আরও পড়ুন: চেন্নাইকে রানের পাহাড় গড়ে হারিয়ে দিল রাজস্থান

সংযুক্ত আরব আমিরাতে মুম্বইয়ের রেকর্ড অত্যন্ত খারাপ। ২০১৪ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে আইপিএলের প্রথম কুড়িটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছিল। মুম্বই এখানে পাঁচটি ম্যাচ খেলেছে। দু’টি ম্যাচে তারা জয়ের মুখ দেখেছিল। বাকি তিনটি ম্যাচ তারা হেরেছে। অন্যদিকে, আবু ধাবিতে কেকেআর তিনটি ম্যাচের মধ্যে দু’টিতে জিতেছে এবং হেরেছে একটি ম্যাচ।

আরও পড়ুন: মরুশহরে রানের পাহাড় গড়ে রেকর্ড রাজস্থানের

মুম্বই আইপিএল ইতিহাসে চারবার (২০১৯, ২০১৭, ২০১৫, ২০১৩) শিরোপা জিতেছে। শেষবার ফাইনালে তারা চেন্নাইকে ১ রানে পরাজিত করেছিল। মুম্বই এ-পর্যন্ত পাঁচবার ফাইনাল খেলেছে। অন্যদিকে, কেকেআর এখন পর্যন্ত দু’বার ফাইনাল খেলেছে (২০১৪, ২০১২) এবং দু’বারই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। 

আইপিএলে মুম্বইয়ের সাফল্যের হার ৫৭.৪৪ শতাংশ, যা কেকেআরের চেয়ে বেশি। মুম্বই ইন্ডিয়ন্স ১৮৮ ম্যাচে ১০৯ ম্যাচ জিতে শীর্ষে রয়েছে। তারা এখন পর্যন্ত ৭৯ ম্যাচ হেরেছে। অন্যদিকে, কেকেআর ১৭৮ ম্যাচের মধ্যে জিতেছে ৯২টি ম্যাচ। তারা হেরেছে ৮৬ ম্যাচে। শাহরুখ খানের দলের সাফল্যের হার ৫২.৫২ শতাংশ। 

কেকেআর ও মুম্বইয়ের মধ্যে এখন পর্যন্ত ২৫টি ম্যাচ খেলা হয়েছে। এরমধ্যে মুম্বই জিতেছে সবচেয়ে বেশি ১৯ ম্যাচে। তারা হেরেছে মাত্র পাঁচটি ম্যাচ। একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত ছিল। শেষ দশটি ম্যাচ সম্পর্কে বললে কেকেআর মুম্বইকে মাত্র একবারই হারাতে সক্ষম হয়েছে। আজকের ম্যাচে যদি মুম্বই জিতে যায়, তবে আইপিএলের ইতিহাসে কোনও দলের বিপক্ষে ২০টি ম্যাচ জেতা প্রথম দল হয়ে উঠবে তারা।

আরও পড়ুন: ৭ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে গম্ভীরের রোষের মুখে ধোনি

স্পিনার এবং ওপেনার ব্যাটসম্যান সুনীল নারাইন ছাড়াও আরও এক ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলের কাছেও কলকাতার প্রত্যাশা থাকবে আকাশচুম্বী। যদিও সম্প্রতি ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খুব বেশি বোলিং করেননি রাসেল। তাই আজকের ম্যাচে রাসেলকে বোলিং করতে দেখা যাবে কিনা, সেই বিষয়ে একমাত্র বলতে পারবেন দলের অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক। ২০১৯ আইপিএল মরশুমে রাসেল ৫২টি ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে রাসেলের রয়েছে সর্বোচ্চ স্ট্রাইক রেট, ১৮৬.৪১ শতাংশ।

দীনেশ কার্তিকের অধিনায়কত্বের অধীনে কেকেআর মরশুমের প্রথম ম্যাচটি জিততে চাইবে। দলে আইপিএল ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যয়বহুল বিদেশি খেলোয়াড় প্যাট কামিন্সও রয়েছেন। কেকেআর এই অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলারকে ১৫.৫০ কোটি টাকায় কিনেছে। এই কারণে কেকেআর ফ্র্যাঞ্চাইজির আশা, তিনি প্রত্যাশামাফিক পারফরম্যান্স করবেন। 

অন্যদিকে রোহিত, হার্দিক, পোলার্ড এই মরশুমে মুম্বইকে প্রথম জয়ের মুখ দেখানোর জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। শক্তিশালী মুম্বইয়ের মিডল অর্ডারে ব্যাট হাতে নামতে পারেন সূর্যকুমার যাদব এবং সৌরভ তিওয়ারি। একইসঙ্গে জসপ্রীত বুমরাহ, ট্রেন্ট বোল্ট এবং জেমস প্যাটিনসনের উপর নির্ভর করবে গোটা দল। সবমিলিয়ে একটা জমজমাট ম্যাচ দেখার আশায় রয়েছেন ক্রিকেট-প্রেমীরা।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *