রবিবার মোহনবাগান সমর্থকদের রিমুভ এটিকে আন্দোলনের সাক্ষী রইল কলকাতা ময়দান

সায়ন ঘোষ

‘Break the merger’ এই দাবি নিয়ে ময়দানে রবিবারের বিকেলে বিক্ষোভে শামিল হলেন প্রায় হাজারখানেক মোহনবাগান সমর্থক। এটিকের সঙ্গে মোহনবাগানের সংযুক্তিকরণের পর থেকেই একের পর এক ঘটনায় ক্ষোভ জমছিল মোহনবাগান সমর্থকদের মনে। তার জেরেই প্রথম বছর থেকে রিমুভ এটিকে আন্দোলন শুরু করেছিলেন মোহনবাগান সমর্থকদের একটা বড় অংশ। কয়েকদিন আগে এটিকে মোহনবাগানের অন্যতম বোর্ড অফ ডিরেক্টরস উৎসব পারেখের করা বিতর্কিত মন্তব্য মোহনবাগান সমর্থকদের ক্ষোভের আগুনে ঘি ঢেলে দেয়। উল্লেখ্য, সম্প্রতি উৎসব পারেখ বলেছিলেন, “এটিকে না থাকলে এএফসি কাপ খেলতে পারত না মোহনবাগান।”

আরও পড়ুন: বিস্ফোরক সুব্রত: কেউ টাকা দিয়েছে বলেই মোহনবাগান সদস্য সমর্থকরা তার কথা শুনে চলতে বাধ্য নন

এই মন্তব্যের পর থেকেই এটিকে মোহনবাগানের সংযুক্তিকরণ ভাঙার দাবিতে পুনরায় সরব হয়ে ওঠে মোহনবাগান সমর্থকরা। ঘটনার পরেই উৎসব পারেখের মন্তব্যের জন্য এটিকে মোহনবাগান ক্লাবের সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষমা চাওয়া হলেও মোহনবাগান সমর্থকরা তাঁদের দাবি থেকে একচুলও নড়েননি। বরং আরও শক্তিশালী হয়ে ওঠে প্রতিবাদ। ৯ সেপ্টেম্বর কলকাতা প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে মোহনবাগান সমর্থকরা সাফ জানিয়ে দেন, এটিকে মোহনবাগানের সংযুক্তিকরণ ভাঙতে হবে।

আরও পড়ুন: ‘রিমুভ এটিকে’: মোহনবাগান সদস্য ও সমর্থকদের জোরালো দাবি প্রেস ক্লাবে

এরপর ১২ সেপ্টেম্বর, রবিবার গোষ্ঠ পাল মূর্তির সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শামিল হন হাজারখানেক মোহনবাগান সমর্থক। গোষ্ঠ পাল মূর্তির সামনে থেকে স্লোগান দিতে দিতে ক্লাবের সামনে পর্যন্ত যান মোহনবাগান সমর্থকরা। তবে এদিন মোহনবাগান মাঠে ডুরান্ড কাপের ম্যাচ থাকায় মাঠে প্রবেশ করেনি মোহনবাগান সমর্থকরা। কিন্তু প্রশাসনের অনুমতি নিয়ে ক্লাবের উল্টোদিকে ইডেন গার্ডেন্সের সামনে দাঁড়িয়ে চলতে থাকে মোহনবাগান সমর্থকদের বিক্ষোভ এবং স্লোগান। এদিন বিক্ষোভস্থলে উৎসব পারেখের কুশপুতুলও পোড়ানো হয়। যদিও এই আন্দোলনের বিষয়ে এখনও অবধি এটিকে মোহনবাগান বোর্ড কর্তাদের তরফে কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি। অবিলম্বে এটিকে মোহনবাগানের সংযুক্তিকরণ যদি ভাঙা না হয়, তাহলে আন্দোলন যে আগামী দিনে আরও জোরালো হবে, তা এদিন ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দিয়েছেন মোহনবাগান সমর্থকরা।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *