পয়লা এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে কুম্ভমেলা, রেজিস্ট্রেশনের জন্য বাধ্যতামূলক করোনা রিপোর্ট

Mysepik Webdesk: শেষ কুম্ভমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১০ সালে। ফের আগামী ১ এপ্রিল থেকে শুরু হতে চলেছে হরিদ্বারের পবিত্র কুম্ভমেলা। তবে এই বছর করোনা পরিস্থিতির জন্য মেলা হবে মাত্র ২৮ দিনের জন্য। এই মেলায় যারা যারা অংশগ্রহণ করতে চান তাদের প্রত্যেককেই রেজিস্ট্রেশন করতে হবে, আর তার জন্য করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই প্রশাসনের পক্ষ থেকে কুম্ভমেলার জন্য প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করে দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত এবছর ৩ টি শাহী স্নানের দিন রয়েছে ১ থেকে ২৮ এপ্রিলের মধ্যে। প্রথমটি ১২ এপ্রিল সোমবতী অমাবস্যার দিন, দ্বিতীয়টি ১৪ এপ্রিল পাইলা বৈশাখের দিন এবং তৃতীয়টি ২৭ এপ্রিল পূর্ণিমার দিন।

আরও পড়ুন: ফের করোনা সারানোর নয়া ওষুধ নিয়ে হাজির রামদেব বাবা

Image result for kumbh mela

প্রত্যেক ১২ বছর অন্তর অন্তর হয় কুম্ভমেলা। মেলা চলতে থাকে চার মাস ধরে। তবে করোনা আবহে এবছর মেলা হবে মাত্র ২৮ দিনের জন্য। দেশজুড়ে পূর্ণার্থীরা পুণ্য অর্জনের জন্য মেলায় অংশগ্রহণ করে থাকেন। পুণ্য অর্জনের জন্য সেখানে স্নান সারেন। তবে এবছর কিছুটা হলেও ভিন্ন চিত্র দেখা যেতে পারে। স্নান সারার ক্ষেত্রেও থাকছে একাধিক বিধিনিষেধ। জানা গিয়েছে, এবার মেলায় জনগণনার জন্য ব্যবহার করা হবে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স। এছাড়াও যারা প্রথম সারিতে থেকে ভিড় সামলাবেন, তাদের আগেভাগে করোনার টিকা দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: স্বাধীন ভারতে এই প্রথম ফাঁসি হতে চলেছে কোনও মহিলা অপরাধীর

Image result for kumbh mela

কুম্ভমেলা প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী ত্রিভেন্দ্র সিং রাওয়াত জানিয়েছেন, “করোনাভাইরাস সম্পর্কে কেন্দ্র যে গাইডলাইন দিয়েছে, তা এই মেলার ক্ষেত্রেও পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে মানা হবে। সেই কারণে এবারের কুম্ভ মেলায় যারা পুণ্যার্থীরা আসবেন, তাদের রেজিস্ট্রেশনের সময় করোনা রিপোর্ট বাধ্যতামূলক। তবে সেই রিপোর্ট পোর্টালে নথিভুক্ত করতে হবে মেলায় প্রবেশের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে। শীঘ্রই এই মর্মে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে।”

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *