Latest News

Popular Posts

হাসির উপর নিষেধাজ্ঞা! গান শোনার দায়ে সাত জনকে মৃত্যুদণ্ড দিলেন কিম জং উন

হাসির উপর নিষেধাজ্ঞা! গান শোনার দায়ে সাত জনকে মৃত্যুদণ্ড দিলেন কিম জং উন

Mysepik Webdesk : উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উন। একনায়কতন্ত্র এবং কঠোর শাসক হিসেবে পরিচিত তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় উঠেছে একাধিক অভিযোগ।সম্প্রতি আরও একটি অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় পপ গান ‘কে পপ’ শোনার দায়ে সাতজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জন উং। একটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন এ তথ্য জানিয়েছে। ওই সংগঠনের রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, ২০১২ থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে অন্তত সাত জনকে প্রাণদণ্ড দিয়েছেন শাসক কিম জং উন। শুধুমাত্র দক্ষিণ কোরিয়ায় তৈরি ‘কে পপ’ শোনা এবং অন্যান্যদের সঙ্গে শেয়ার করার ‘অপরাধে’ এই শাস্তি দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: ট্যাঙ্কার বিস্ফোরণে হাইতিতে মৃত ৫০

বিভিন্ন সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে খবরে বলা হয়েছে, উত্তর কোরিয়ার শাসক দক্ষিণ কোরিয়ার জনপ্রিয় পপগান তার দেশে শোনাকে একেবারেই বরদাস্ত করছেন না।এর মধ্যে ৬টি ঘটনা হয়েছে উত্তর কোরিয়ার হেসান প্রদেশে। ওই আন্তর্জাতিক মানবাধিকার রক্ষাকারী সংগঠনের তরফে দাবি করা হয়, ২০১৫ সাল থেকে অন্তত ৬৮৩ জন উত্তর কোরিয়ার বাসিন্দার সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলেছে সংগঠনটি। যারা কিমবিরোধী, তাদের সঙ্গেই কথা বলা হয়েছে। সংগঠনটি জানিয়েছে, কিমের প্রথম পাঁচ বছরের শাসন কালে বিভিন্ন কারণে ৩৪০ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।

আরও পড়ুন: ভূমিকম্পের পর সুনামির সতর্কতা জারি ইন্দোনেশিয়ায়

অন্যদিকে, ১৭ ডিসেম্বর থেকে টানা ১০ দিন উত্তর কোরিয়ার নাগরিকদের মদপান চলবে না, কেউ হাসাহাসি করতে পারবেন না, এমনকী খুশিরভাবও দেখানো যাবে না, উৎসবে মেতে ওঠা যাবে না বলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সেই দেশের শাসক। কিমের বাবা কিম জং ইল-এর দশম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কড়া নির্দেশিকা দিয়েছে কিম জং উন সরকার। এ বিষয়ে নিজের পরিচয় গোপন করে উত্তর কোরিয়ার সীমান্তবর্তী সিনজুইজু-এর এক বাসিন্দা রেডিও ফ্রি এশিয়াকে জানিয়েছেন, এর আগেও যখন জাতীয় শোক চলে, তখন মদ খেয়ে থাকার অভিযোগে অসংখ্য মানুষকে গ্রেফতার করেছে উত্তর কোরিয়ার প্রশাসন। এই নিয়ম লঙ্ঘন করলে নাগরিকদের পেতে হবে কঠিন শাস্তি বলে প্রশাসনের পক্ষ জানানো হয়েছে।

টাটকা খবর বাংলায় পড়তে লগইন করুন www.mysepik.com-এ। পড়ুন, আপডেটেড খবর। প্রতিমুহূর্তে খবরের আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজটি লাইক করুন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *