শান্তিপুরে আবাস যোজনার তোলাবাজির বিরুদ্ধে রাস্তায় লিফলেট

Nadia

Mysepik Webdesk: এতদিন রাজনীতির ময়দানে দেওয়াল লিখন, পোস্টার, ফ্লেক্স ব্যানার ব্যবহার হতে দেখা গেছে। এবারে দেখ মিলল লিফলেটের। এদিন সকল সাতটা নাগাদ শান্তিপুর পৌরসভার ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে পৌর অতিথি নিবাসের সামনের রাস্তায় ইতস্তত ভাবে কিছু লিফলেট ছড়িয়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী।

আরও পড়ুন: উত্তরাখণ্ডের তুষারধসে নিখোঁজ মহিষাদলের তিন শ্রমিকের পরিবারের পাশে শুভেন্দু

লিফলেটে লেখা রয়েছে, ” শান্তিপুর পৌরসভার ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ঘর নিয়ে দরবাজি ও স্বজনপোষণ করা হয়েছে। পৌরসভার চেয়ারম্যান অজয় দে যে অবৈধ্য ১০০ ঘর দিয়েছে তা প্রাক্তন কাউন্সিলার বিকাশ সাহা (শ্যাম সাহা) মাধ্যমে ঘর পিচু ৫০ থেকে ৭০ হাজার টাকা তোলাবাজি হয়েছে, যাহার মোট পরিমাণ ৬৫ লক্ষ টাকা। এই তোলাবাজির টাকা প্রশাসনিক তদন্ত সাপেক্ষ। চেয়ারম্যান অজয় দে ও শ্যাম সাহার বিচার চাই।” নিচে বয়ান হিসেবে সুফল সরকার ও বিশ্বনাথ মজুমদার যুগ্ম-আহ্বায়ক ২৪ নম্বর ওয়ার্ড তৃণমূল কংগ্রেস কমিটি, এবং নারায়ণ সাহা সভাপতি ও অমর প্রামানিক সহ-সভাপতি ২৪ নম্বর ওয়ার্ড তৃণমূল কংগ্রেস কমিটি নাম লেখা আছে।

আরও পড়ুন: ‘সর্বরোগহারা’ ড্রাগন ফল চাষ করে দক্ষিণ দিনাজপুরের চাষিরা লাভবান হচ্ছেন

এ ব্যাপারে শ্যাম সাহা জানান, “আমি কাউন্সিলর নই! তাই ঘর দেওয়ার মালিকও আমি নই। তবে বিজেপির সঙ্গে কিছু তৃণমূল কংগ্রেস যুক্ত রয়েছে তারাই হয়তো এ কাজ করেছে। “

লিফলেটের বয়ানে থাকা নারায়ণ সাহা জানান, “তৃণমূলের সকলে আমরা দীর্ঘদিনের কর্মী, তবে যে পদ গুলি ব্যবহার করা হয়েছে সেগুলো সম্পূর্ণ ভুল।” অমর প্রামানিক জানান, ‘আমরা সাধারন তৃণমূল কর্মী সকাল বেলায় আমার নামে লিফলেট দেখে, অন্য সকলের সঙ্গে যোগাযোগ করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ জমা করে এসেছি।”

আরও পড়ুন: ‘পিসি-ভাইপোর দুর্নীতি শেষ করার জন্য পরিবর্তন যাত্রা’, কোচবিহারের সভায় অমিত শাহ

সুফল সরকার জানান, ” তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে বৈষম্য সৃষ্টি করার জন্য বিজেপি এ কাজ করে থাকতে পারে।” বিশ্বনাথ মজুমদার জানান, ‘আমাদের দলের কেউ হলেও হতে পারে! যে চাইছেনা ঐক্যবদ্ধ তৃণমূল গঠিত হোক।’

তবে পনেরো-কুড়িটি এ ধরনের লিফলেট পথের পাশে পড়ে আছে শোনা গেলেও মাত্র দুটি আমাদের ক্যামেরায় ধরা পড়েছে।

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *