সাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক প্রয়াত

Hasan ali

Mysepik Webdesk: কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক প্রয়াত। ১৫ নভেম্বর, সোমবার রাত ৯টা ১৫ মিনিট নাগাদ তিনি রাজশাহীতে তাঁর নিজ গৃহে প্রয়াত হয়েছেন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারের প্রাক্তন চিকিৎসক ডা. মির্জা ওয়াজেদ হোসেন বেগ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার যবগ্রামে জন্মেছিলেন হাসান আজিজুল হক। তাঁর শৈশব কেটেছে এই বঙ্গেই। তিনি মাধ্যমিক পাশ করেন এই এপার বঙ্গের গ্রামটিতে থেকেই। বার্ধক্যজনিত নানান রোগে ভুগে ৮২ বছর বয়সে তিনি প্রয়াত হয়েছেন এদিন। তাঁর মৃত্যুতে দুই বঙ্গের সাহিত্য মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। কর্মসূত্রে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে তিন দশক অধ্যাপনার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন এই কথাসাহিত্যিক। ২০০৪-এ অবসরে গিয়েছিলেন তিনি। এছাড়াও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্মানসূচক ‘বঙ্গবন্ধু চেয়ার’ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি।

হাসান আজিজুল হক ১৯৯৯-এ একুশে পদক ও ২০১৯-এ স্বাধীনতা পুরস্কারপ্রাপ্ত কথাসাহিত্যিক। তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোকাহত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শোকপ্রকাশ তিনি বলেন, “তাঁর সাহিত্যকর্ম ও সৃজনশীলতায় চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন হাসান আজিজুল হক। ছয়ের বাংলা সাহিত্য জগতে আবির্ভূত হওয়া হাসান আজিজুল হকের উপন্যাস ‘আগুন পাখি’ দুই বাংলার পাঠক মহলে দারুণ কদর পেয়েছে। তাঁর প্রথম গল্পগ্রন্থ ‘সমুদ্রের স্বপ্ন শীতের অরণ্য’। এ ছাড়াও লিখেছেন ‘বিমর্ষ রাত্রি’, ‘ফেরা’, ‘সরল হিংসা’র মতো গল্প গল্পও। এছাড়াও ‘একাত্তর করতলে ছিন্নমাথা’, ‘রবীন্দ্রনাথ ও ভাষাভাবনা’ পাঠকদের কাছে খুবই সমাদৃত। লিখেছেন ‘সক্রেটিস’, ‘সাবিত্রী উপাখ্যান’-এর মতো গ্রন্থও। তিনি বাংলা একাডেমি পুরস্কার পান ১৯৭০-এ। তিনি বাংলাদেশে পাকাপাকিভাবে থাকা শুরু করলেও পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গেও তাঁর ছিল নাড়ির টান।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *