মালদ্বীপ ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্কের জন্য বিরোধীদের কাছে ক্ষমা চাইবে না: রাষ্ট্রপতি সোলেহ

Mysepik Webdesk: তাঁর দু’বছরের দায়িত্ব পালনকালে নীতিগতভাবে অনেক কিছুরই পরিবর্তন হয়েছিল। কিন্তু তাঁর সরকার অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছে। তার ওপর করোনা মহামারির পর থেকে সেই চ্যালেঞ্জ আরও বেড়েছে। ‘দ্য হিন্দু’ সংবাদপত্রকে দেওয়া একটি সাক্ষাত্কারে রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মহম্মদ সোলিহ অর্থনৈতিক পরিকল্পনা, আঞ্চলিক সহযোগিতা নিয়ে কথা বলেন। ভারতের উপর ‘অতিরিক্ত নির্ভরতা’ নিয়ে তাঁর সরকারের সমালোচনারও জবাব দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানি খুদের মুখে ভারত প্রসঙ্গে ইতিবাচক মন্তব্য: ভাইরাল ইউটিউব ভিডিয়ো

তাঁকে প্রশ্ন করা হয়েছিল যে, মালদ্বীপ সরকারের ‘অতিরিক্ত ভারত নির্ভরতা’ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করছে বিরোধীরা। তিনি ক্ষমতায় আসার পর থেকে মালদ্বীপ-ভারত দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক অনেক উন্নত হয়েছে। তা সত্ত্বেও এই সমালোচনা। এ-নিয়ে তিনি কী জবাব দেবেন? উত্তরে তিনি বলেন, “মালদ্বীপে অর্থনৈতিক ত্রাণ ও আর্থিক সহায়তা প্রদানের পাশাপাশি এর ক্রমান্নয়নে সহায়তা করার ক্ষেত্রে আমরা ভারতের সক্রিয় ভূমিকাটির প্রশংসা করি। আমরা ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের জন্যও খুব আনন্দিত। মালদ্বীপ তার সমস্ত পার্টনারদের সঙ্গেও যোগাযোগ করতে আগ্রহী।”

আরও পড়ুন: বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্ত বাণিজ্য শুরু করতে চেয়ে সরকারের কাছে আবেদন রাখাইনের স্থানীয় ব্যবসায়ীদের

তবে বিরোধী এবং সমালোচকরা সরকারকে ‘মালদ্বীপ বিক্রি’ করার অভিযোগ করেছে। এরজন্য রাস্তায় সমাবেশ করা হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘ইন্ডিয়া আউট’ প্রচারও চালানো হচ্ছে। এই বিষয়ে রাষ্ট্রপতি সোলেহর জবাব, “বিচ্ছিন্নতাবাদী বৈদেশিক নীতি থেকে দূরে সরে যাওয়া এবং প্রতিবেশীদের সঙ্গে জড়িত হওয়া আমাদের জাতীয় সুরক্ষাকে মজবুত করে। তাছাড়াও সার্বভৌম দেশ হিসাবে সম্মানও বৃদ্ধি করে। মালদ্বীপ তার বৃহত্তম প্রতিবেশী এবং নিকটতম আন্তর্জাতিক মিত্রদের অন্যতম ভারতের সঙ্গে ইতিবাচক সম্পর্কের জন্য ক্ষমা চাইবে না। আমরা আমাদের বৈদেশিক নীতি এবং প্রশাসনের অন্যান্য দিকগুলির প্রতি গঠনমূলক সমালোচনাকে স্বাগত জানাই।”

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *