হরিয়ানা সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিশ্রুতি রক্ষা না করার অভিযোগ কুস্তিগীর সাক্ষী মালিকের

Mysepik Webdesk: ভারতের অভিজ্ঞ কুস্তিগীর সাক্ষী মালিক হরিয়ানা সরকার প্রতিশ্রুতি না মানার অভিযোগ করেছেন। অলিম্পিক পদকপ্রাপ্ত সাক্ষী অভিযোগ করেছেন যে, বিশ্বের বৃহত্তম মঞ্চে সফল হওয়ার পরেও তাঁকে কেবল আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে, তবে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী পুরস্কার দেওয়া হচ্ছে না। সাক্ষী ২০১৬-র রিও অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন।

আরও পড়ুন: ধোনিকে চিঠি প্রধানমন্ত্রী মোদির

অর্জুন পুরস্কারের জন্য সম্প্রতি মনোনীত ২৯ জন খেলোয়াড়ের একজন সাক্ষী মালিক। তিনি বলেছেন যে, সরকার তাদের কাছে ৫০০ গজ জমি বা সরকারি চাকরির প্রতিশ্রুতি দেয়নি। এত বছর ধরে কেবল আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে।

সাক্ষী ঠিক চার বছর আগে ২০১৬-র ১৮ আগস্ট রিও অলিম্পিকে রেসলিংয়ের ব্রোঞ্জ পদক জিতেছিলেন। সাক্ষী কুস্তিতে অলিম্পিক পদক জিতে প্রথম ভারতীয় মহিলা কুস্তিগীর হয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, রিও অলিম্পিকে ভারতীয় ক্রীড়াবিদদের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের মধ্যেও সাক্ষী দেশকে প্রথম মেডেল উপহার দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: টানা ৯ গোল লেভানদোস্কির

এই অর্জনের ৪ বছর পরেও পুরস্কার না পেয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন সাক্ষী। তিনি বলেন, “আমি রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী অনিল বিজ এবং মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছি। তবে সেখান থেকে কেবল আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে যে কাজ চলছে। যদিও এখনও পর্যন্ত কিছুই হয়নি।”

হরিয়ানা সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিশ্রুতি পালন না করার অভিযোগ সাক্ষীর প্রথমবার নয়। এর আগে ২০১৭ সালেও সাক্ষী হরিয়ানা সরকারকে একই অভিযোগে অভিযুক্ত করেছিলেন। সাক্ষী টুইট করেছিলেন যে, তিনি পদক আনার প্রতিশ্রুতি পূর্ণ করেছিলেন। কিন্তু হরিয়ানা সরকার কখন এই প্রতিশ্রুতি পূর্ণ করবে?

হরিয়ানা সরকার প্রায়শই অ্যাথলিটদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য বড় পুরস্কারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কেবল সাক্ষী নয়, প্রতিশ্রুতি পূরণ না করার অভিযোগ তোলা হয়েছিল শ্যুটিং বিভাগের এক তারকার তরফেও। এর আগে তরুণ শ্যুটার মনু ভাকরও একই ধরনের অভিযোগ করেছিলেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *