১০৫ বছরে জীবনের ‘রেস’ থেমে গেল ‘মিরাক্যল মম’ মান কৌরের

Mysepik Webdesk: বয়স যে কেবল একটা নম্বর, তা তিনি প্রমাণ করেছিলেন। তাঁর বয়স যখন সেঞ্চুরি পেরিয়েছিল, সেই সময়েও দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক পদক এনেছিলেন তিনি। তিনি, প্রখ্যাত প্রবীণ ক্রীড়াবিদ মন কৌর, প্রয়াত হয়েছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ১০৫ বছর। শনিবার দুপুর ১টা নাগাদ তিনি পঞ্জাবের ডেরাবাসিতে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। পিত্তথলির ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করেছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: অলিম্পিকে সোনা জয়ের স্বপ্ন অধরাই র‍য়ে গেল সিন্ধুর

তাঁর চিকিৎসা চলছিল ডেরাবাসির শুদ্ধি আয়ুর্বেদা পঞ্চকর্ম হাসপাতলে। মন কৌরের মৃত্যু এক ঘণ্টা আগে তাঁর পুত্র গুরুদেব সিং জানিয়েছিলেন যে, তাঁর মা সুস্থ হয়ে উঠছেন। মন কৌরের শরীরে এবং পেটে ব্যথা কম। আগে তিনি তাঁর পা আগে পিছে করতে পারতেন না। এখন তিনি পা নাড়াচ্ছেন। চেয়ারেও বসতে পারছিলেন তিনি। কিন্তু হঠাৎই দুপুর একটার সময় মন কৌরের মৃত্যুর খবর আসে।

আরও পড়ুন: পদক জয়ের আশা বাড়িয়ে অলিম্পিক ডিস্কাসে ফাইনালে কমলপ্রীত কৌর

মন কৌর জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক স্তরে অনেক প্রতিযোগিতায় ৩৫টিরও বেশি পদক জিতেছেন। করোনা পরিস্থিতির আগে তিনি ক্রমাগত দেশের হয়ে পদক জিতে জাতীয় পতাকার গর্ব বাড়িয়ে তুলেছিলেন। তাঁর এই কৃতিত্বের জন্য তিনি ২০২০ সালে নারী শক্তি পুরস্কার ভূষিত হন। রাষ্ট্রপতি ভবনে মন কৌর যে গতিতে পৌঁছেছিলেন, তা দেখে স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছিলেন অনেকেই। তিনি পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিংহের কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকার চেক গ্রহণ করেছিলেন। এছাড়া শিরোমণি অকালি দল (বাদল)-এর বিধায়ক এন কে শর্মাও হাসপাতালে এক লক্ষ টাকার চেক দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: আনন্দে উদ্বেল অসম থেকে আন্দামান: লভলিনার সাফল্যের নেপথ্যে ধৈর্য এবং উচ্চতা, জানালেন কোচ কামার

একই সময়ে মাস্টার্স অ্যাথলেটিক্স অ্যাসোসিয়েশন তাঁকে আর্থিক সাহায্যও করেছিল। উল্লেখ্য যে, ২০১৭-তে অকল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ওয়ার্ল্ড মাস্টার্স গেমসে ১০০ মিটার স্প্রিন্টে প্রথম স্থান দখল করেছিলেন তিনি। সেই সময় তাঁর বয়স ছিল ১০১ বছর। ১৯১৬ সালের ১ মার্চ জন্মানো মন কৌরকে বলা হত ‘মিরাক্যল মম’, কারণ বয়সকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে তিনি অসাধ্য সাধন করেছিলেন।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *