মনবীর, কৃষ্ণের জোড়া গোল: তিন পয়েন্ট তুলল সবুজ মেরুন শিবির

Mohun Bagan

সায়ন ঘোষ

সবুজ মেরুন ঝড়ে তছনছ ওড়িশা। সৌজন্যে মনবীর সিং ও রয় কৃষ্ণা। এটিকে মোহনবাগানের দুই স্ট্রাইকার কার্যত ছেলেখেলা করলেন ওড়িশা রক্ষণকে নিয়ে। এমনিতেই সময়টা ভালো যাচ্ছে না ওড়িশা এফসি-র। তার‌ ওপর ওড়িশা এফসি তাদের কোচকে বরখাস্ত করেছে। তারপরও কিছুটা লড়াই করেছিল আলেকজান্ডার ও জেরির সৌজন্যে। কিন্তু কোনও কাজে এলো না সেই লড়াই।

আরও পড়ুন: তৃতীয় দিনে চাপে ভারত, ফলোঅন এড়াতে এখনও দরকার ১২২

হাবাস দল সাজান ৪-৪-২ ছকে। গোলে অরিন্দম ভট্টাচার্য। রক্ষণে প্রীতম, সন্দেশ, তিরি ও শুভাশিস। মাঝমাঠে মনবীর, লেনি, প্রণয় ও জাভি হার্নান্দেজ। আপফ্রন্টে রয় কৃষ্ণা ও মার্সেলিনো। অন্যদিকে, ওড়িশা এফসিদল নামায় ৪-৩-৩ ছকে। গোলে আর্শদীপ সিং। রক্ষণে মহম্মদ সাজিদ, ট্রট, গৌরব বোরা ও রাকেশ প্রধান। মাঝমাঠে পল, বিনীথ রাই ও আলেকজান্ডার কোল। আপফ্রন্টে জেরি, ম্যানুয়াল ও মরিসিও।

ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণের ঝড় তোলে এটিকে মোহনবাগান। ১১ মিনিটে বক্সের মধ্যে বল বাঁ-পায়ের ইনস্টেপে বিশ্বমানের গোল করে দলকে এগিয়ে দেন মনবীর সিং। ১৪ , ১৮ ও ২৩ মিনিটে একের পর এক দূরপাল্লার শট নিয়ে ওড়িশা রক্ষণকে কাঁপিয়ে দেন রয় কৃষ্ণা, লেনি, মার্সেলিনোরা। কিন্তু ৪৬ মিনিটে বারে লেগে ফিরে আসা বলে দুর্দান্ত শট নিয়ে গোল শোধ করে দেয় আলেকজান্ডার কোল।

আরও পড়ুন: কিংবদন্তি টেনিস ব্যক্তিত্ব আখতার আলি প্রয়াত, শোকপ্রকাশ মুখ্যমন্ত্রীর

দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণাত্মক খেলতে থাকে হাবাস বাহিনী। ২০১৬ সালের পর ফের সবুজ মেরুন মাঝমাঠে দেখা গেল লেনি-প্রণয় জুটিকে। এদিন লেনি ও প্রণয়ের দাপটে মাঝমাঠের দখল নেয় এটিকে মোহনবাগান। ৫৪ মিনিটের মাথায় ফের গড়ানো শটে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন মনবীর সিং। ৫৯ মিনিটে মনবিরের শট সেভ করেন আর্শদীপ। ৬৬ মিনিটে দুর্দান্ত সেভ করেন অরিন্দম। ৮৩ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করেন রয় কৃষ্ণা। ৮৬ মিনিটের মাথায় একক প্রচেষ্টায় দলের চতুর্থ ও নিজের দ্বিতীয় গোল করেন রয় কৃষ্ণা।

এই জয়ের ফলে এটিকে মোহনবাগান ১৫ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। সমসংখ্যক ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে লিগ শীর্ষে মুম্বই। জয়ের পর ডার্বির আগে আরও মনোবল বাড়িয়ে নিলো হাবাসের ছেলেরা, তা বলাই বাহুল্য।

ছবি সৌজন্য: আইএসএল

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *