করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের দোরগোড়ায় মানবজাতি, সতর্কবার্তা হু-প্রধানের

Mysepik Webdesk: সবেমাত্র করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ সামলে উঠেছে ভারত। তার মধ্যেই আশঙ্কা শুরু হয়েছে তৃতীয় ঢেউয়ের। এবার সেই আশঙ্কায় কার্যত সিলমোহর দিলো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বৃহস্পতিবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়েসুস জানালেন, তৃতীয় ঢেউয়ের প্রাথমিক স্তরে পৌঁছে গিয়েছে মানবজাতি। আর এই তৃতীয় ঢেউ বয়ে আনবে করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। তিনি আরও জানান, ইদানিং সামাজিক মেলামেশা বৃদ্ধি এবং করোনা বিধিনিষেধের অবহেলার কারণে উর্ধমুখী হতে চলেছে করোনা আক্রান্তের গ্রাফ।

আরও পড়ুন: পাকিস্তানে বাসে আইইডি বিস্ফোরণ, মৃত্যু কমপক্ষে ১০ জনের

এদিন হু প্রধান জানান, “ডেল্টা স্ট্রেন ইতিমধ্যেই বিশ্বের ১১১টিরও বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। মনে করা হচ্ছে, এখনও পর্যন্ত হয়ে না থাকলে অদূর ভবিষ্যতে এটাই বিশ্বের প্রধান করোনা স্ট্রেন হয়ে উঠবে।” হু জানাচ্ছে, টানা ১০ মাস নিয়ন্ত্রণে থাকলেও ইদানিং বিশ্বজুড়ে নতুন করে প্রভাব বিস্তার করা শুরু করেছে করোনার নতুন ডেল্টা স্ট্রেন। ফলে, বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। করোনায় মৃত্যুর হার কমাতে আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রতিটি দেশের অন্তত ১০ শতাংশ, ২০২১ সালের শেষে ৪০ শতাংশ এবং ২০২২ সালের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে ৭০ শতাংশ মানুষের টিকাকরণ সম্পূর্ণ করারও আবেদন জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান।

আরও পড়ুন: এই চারটি কারণে নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না করোনাকে

অন্যদিকে ডেল্টা ভেরিয়েন্ট নিয়ে ‘ব্লুমবার্গ’-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান গবেষক ডা. সৌম্যা স্বামীনাথন করোনার বাড়বাড়ন্তের অন্যতম কারণ হিসেবে মূলত চারটি বিষয়কেই দায়ী করলেন। তিনি জানান, লকডাউনের রাশ আলগা করা, অনিয়ন্ত্রিত সামাজিক মেলামেশা, টিকাকরের ধীরগতি এবং করোনার নতুন স্ট্রেন ডেল্টা, এই চারটি কারণে আজও বিশ্বজুড়ে সক্রিয় রয়েছে করোনার দাপট। স্বামীনাথনের কথায়, এখনও পর্যন্ত বিশ্বে যতগুলি করোনার ভ্যারিয়েন্ট দেখা গিয়েছে, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি বিপজ্জনক প্রমাণিত হয়েছে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *