ভবিষ্যতের শক্তিশালী আর্জেন্টাইন ব্রিগেড তৈরি করে দিচ্ছেন মেসি

Mysepik Webdesk: চিলির কাছে কোপা আমেরিকার ফাইনালে হেরে চোখের জল মুছতে মুছতে মাঠ ছেড়েছিলেন বিশ্ব ফুটবলের রাজকুমার। বলেছিলেন, আর মাঠে ফিরবেন না। কিন্তু তিনি ফিরলেন। বলা ভালো, গোটা বিশ্ব তাঁকে কাতর অনুরোধ করে ফেরাল মাঠে। ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে ফের সেই ব্যর্থতা। একা টানলেন একটা দলকে। কিন্তু যতই তাঁকে ‘ফুটবল ঈশ্বরের বরপুত্র’ বলা হোক না কেন, তিনিও তো রক্ত-মাংসে গড়া মানুষ। যতটুকু পেরেছেন নিজের মতো করে বিশ্বকাপের আঙিনায় আর্জেন্টিনাকে তুলে নিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু একটা সময় তাকে ব্যর্থ মনোরথ হয়ে ফিরতে হয়েছে। নিজেকে অনেকটা পাল্টে ফেলেছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল ঈশ্বরের দান লিওনেল মেসি। দলকে বোঝাতে চেষ্টা করেছেন, ‘দেখো আমি হয়তো আর কয়েকটা দিন। তারপর তোমাদেরই দায়িত্ব তুলে নিতে হবে নিজেদের কাঁধে।’

আরও পড়ুন: গ্রামীণ পথ বেয়ে ভারতীয় হকি দলে শিবানী সাহু

চলতি কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার পারফরম্যান্স সেই ইঙ্গিতই দিচ্ছে। লিও মেসি অবিশ্বাস্য গোল করছেন, গোল করাচ্ছেন। আর্জেন্টিনার বিপক্ষ টিমগুলো জানে, তারা কার বিরুদ্ধে খেলছে। মেসিকে আটকাতে জোনাল মার্কিংয়ের ব্যবস্থা তারা করছে অবশ্যই। কিন্তু যিনি ঈশ্বরপ্রদত্ত প্রতিভা নিয়ে জন্মেছেন, তাঁকে কি এইসব মার্কিং দিয়ে আটকে রাখা যায়? আর তাঁকে বিপক্ষের ডিফেন্ডাররা আটকাতে গেলে আর্জেন্টিনার বাকি ফুটবলাররা মনের আনন্দে খেলে গোল করে চলে যাচ্ছেন। আসলে এটার মূলেও সেই লিওনেল মেসি। লিওনেল স্কালোনি নামে আর্জেন্টিনার একজন কোচ আছেন ঠিকই, কিন্তু নেপথ্যে পুরো দলটাকে তৈরি করে দিয়েছেন ফুটবল রাজকুমার।

আরও পড়ুন: ইউক্রেনকে উড়িয়ে সেমিফাইনালে ইংল্যান্ড

চলতি কোপা আমেরিকায় মেসি ছাড়া একটা ম্যাচও খেলেনি আর্জেন্টিনা। কিন্তু এটা হলফ করে বলা যেতে পারে, মেসিহীন আর্জেন্টিনাও এখন জেতার দাবিদার হতে পারে। কারণ অনেক সময় দেখা যাচ্ছে, মেসি অনেকটা পিছন থেকে খেলছেন। খেলাটা কিছুটা তৈরি করে বাকিটা ছেড়ে দিচ্ছেন লোটেরো মার্টিনেজ, নিকোলাস গঞ্জালেজ, গডিও রডরিগেজ জোয়াকিন কোরিয়া কিংবা এঞ্জেল কোরিয়ার দায়িত্বে। এঁদের কেউ কেউ কোনও একদিন যদি প্রথম একাদশে খেলেন, তাহলে পরের দিনে তাঁরা রিজার্ভে থাকছেন।

আরও পড়ুন: উইম্বলডনের তৃতীয় রাউন্ডে সানিয়া-বোপান্না জুটি

২০২২ কাতার বিশ্বকাপের পর আন্তর্জাতিক ফুটবলে লিওনেল মেসিকে আর দেখা যাবে কিনা, সেটা নিয়ে সন্দেহ দানা বেঁধেছে। মেসি নিজেই এমন ইঙ্গিত দিয়েছেন। তাই তিনি থাকতে থাকতেই একটা শক্তিশালী আর্জেন্টাইন ব্রিগেড তৈরি করে দিয়ে যেতে চাইছেন। কোপা আমেরিকায় নেই পাওলো দিবালা। মেসিকে বাদ দিলে বর্তমান দলটাতে দিবালা যোগ হলে আর্জেন্টিনার প্রথম একাদশ অনেক শক্তিশালী হবার কথা। আর সেটাই করে দিয়ে যেতে চাইছেন লিওনেল মেসি। এবারের গোটা প্রতিযোগিতায় আর্জেন্টিনার পারফরম্যান্স দেখলে এটা হলফ করে বলা যায় মেসি হয়তো কি-ফ্যাক্টর, কিন্তু আর্জেন্টিনা খেলছে একটা টিম গেম। সেখানে বাকিদের অবদানও খুব একটা কম নয়। অবশ্য কোপা আমেরিকা এখনও অনেকটাই বাকি। আর্জেন্টিনা কোথায় শেষ করবে সেটা বলা কঠিন। ফাইনাল পর্যন্ত তাদের আশা করাই যায়। এটা সত্য, মেসি প্রতি ম্যাচে খেললেও ধীরে ধীরে কিন্তু মেসি-নির্ভরতা কাটিয়ে উঠতে চলেছে বর্তমান আর্জেন্টাইন ব্রিগেড। মেসিহীন আর্জেন্টিনা পরবর্তীকালে তাদের শক্তি ধরে রাখতে পারবে কিনা সেটা পরের কথা। আপাতত এটা সত্য, মেসির হাত ধরেই বর্তমানে একটা স্বনির্ভর আর্জেন্টিনা ফুটবল একাদশ তৈরি হয়ে গেছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *