ভাঙা পড়তে চলেছে মিঠুন চক্রবর্তীর রিসোর্ট, কারণ জানলে অবাক হয়ে যাবেন

Mysepik Webdesk: ভারতের সর্বোচ্ছ আদালতের রায়ে এবার ভাঙা পড়তে চলেছে মিঠুন চক্রবর্তী-সহ একাধিক সেলিব্রিটি ও নামী ব্যক্তিদের রিসর্ট। তামিলনাড়ুর নীলগিরি পাহাড়ের কোলে মুদুমালাই রিজার্ভ ফরেস্টে হাতিদের যাতায়াতের পথে বাধা সৃষ্টি হওয়ায় ২০১১ সালেই ওই এলাকার বেশ কয়েকটি রিসোর্ট ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল মাদ্রাজ হাইকোর্ট। এবার মাদ্রাজ হাইকোর্টের সেই রায়কেই বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুন: পাঁচ দিনের জন্য খুলছে শবরীমালা মন্দির, দর্শনার্থীদেরও করাতে হবে কোভিড টেস্ট

জানা গিয়েছে ওই এলাকায় অবস্থিত বেশ কয়েকটি রিসর্টের মধ্যে অভিনেতা তথা প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ মিঠুন চক্রবর্তীর রিসর্টও রয়েছে। ২০১১ সালের মাদ্রাজ হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ৩২টি জমি ও রিসর্টের মালিকেরা সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন। তাদের মধ্যে ছিলেন মিঠুন চক্রবর্তীও। গত বছর অগস্ট মাসে ওই রিসর্টগুলি সিল করে দেওয়ার নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। ১৯৯৬ সালে এই ব্যাপারে পিটিশন দাখিল করেছিলেন এ রঙ্গরাজন। এরপর ২০০৭-০৮ সালে দুটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন রাজেন্দ্রন ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা নীলগিরি ওয়াইল্ড লাইফ প্রোটেকশন। সেই মামলার ভিত্তিতে ২০১১ সালে রিসর্টগুলি ভেঙে ফেলার নির্দেশ দেয় মাদ্রাজ হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন: লাদাখ নিয়ে মন্তব্য করার চিনকে করা জবাব দিল বিদেশমন্ত্রক

মাদ্রাজ হাইকোর্টের সেই রায়কে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন মিঠুন চক্রবর্তী-সহ অন্যান্য মালিকরা। পিটিশনে দাবি করা হয়েছিল ওই রিসর্ট এলাকার ইকো-ট্যুরিজমেরই অংশ। পাশাপাশি ওই রিসর্টগুলি স্থানীয় আদিবাসী মানুষেরও কর্মসংস্থানেরও অংশ বলে দাবি করা হয়েছিল পিটিশনে। সেই দাবি অবশ্য মানতে চায়নি শীর্ষ আদালত। অবশেষে মাদ্রাজ হাইকোর্টের রায়ই বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *