পশ্চিমবঙ্গের সর্বত্র বিরাজমান মৌসুমী বায়ু, আগামী চারদিন রাজ্যজুড়ে বৃষ্টিপাত

Mysepik Webdesk: শনিবার পর্যন্ত ভুবনেশ্বর বারিপদা থেকে পুরুলিয়া ধানবাদ হয়ে দ্বারভাঙ্গার উপর বিস্তৃতি ছিল মৌসুমী বায়ুর উত্তর রেখা। যার প্রভাবে রাজ্যজুড়ে চলছে বর্ষার বৃষ্টি। রবিবার সেই অক্ষরেখাটি আরও একটু এগিয়ে পূর্ব উত্তর প্রদেশে ঢুকে পড়বে। অন্যদিকে পূর্ব-পশ্চিমে আরও একটি অক্ষরেখা তৈরি হয়েছে, যা পঞ্জাব থেকে বাংলা-ওড়িশা উপকূলের নিম্নচাপ পর্যন্ত বিস্তার লাভ করেছে। এর ফলে আগামী চার-পাঁচ দিন পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা এবং ছত্রিশগড়ে চলবে বৃষ্টিপাত। ওড়িশা, ছত্রিশগড়, মধ্যপ্রদেশ এবং তেলেঙ্গানাতে আগামী চার-পাঁচ দিন ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত হবে। এছাড়াও আগামী তিনদিন কঙ্কন ও গোয়াতেও ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। ভারী বৃষ্টি হবে মহারাষ্ট্র ও কেরলেও।

আরও পড়ুন: ১৬ জুন রাজ্যে শেষ হচ্ছে বিধিনিষেধের বেড়াজাল, এমন জল্পনার মাঝে দেখে নিন কী কী ক্ষেত্রে পাওয়া যেতে পারে ছাড়

এদিকে আগামী দু’দিন উত্তরবঙ্গে ভারী বৃষ্টি পূর্বাভাস জারি রয়েছে। গোটা রাজ্যজুড়ে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ হালকা-মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। কলকাতা-সহ গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে আগামী সপ্তাহের মাঝামাঝি বৃষ্টির পরিমান বাড়বে। এছাড়াও উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, কালিম্পং জেলায় আগামী ২৪ ঘন্টায় ভারী বৃষ্টি হবে। উত্তরবঙ্গের আলিপুরদুয়ার কোচবিহার, জলপাইগুড়ি জেলাতেও ভারী বৃষ্টিপাত হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলাগুলিতে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বিশেষকরে ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া জেলাতে বৃষ্টিপাত হবে।

আরও পড়ুন: লোকাল ট্রেন চালাতে রাজ্য সরকারকে আবেদন পূর্ব রেলের

আজ কলকাতার আকাশ মূলত মেঘলা থাকবে। বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমান বেশি থাকার ফলে আদ্রতাজনিত অস্বস্তি বজায় থাকবে। রবিবার সকালে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি বেশি। শনিবার বিকেলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৩.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা স্বাভাবিক থেকে ১ ডিগ্রি কম। বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ৬৮ থেকে ৯১ শতাংশ। এদিকে নিম্নচাপের প্রভাবে সমুদ্র উত্তাল থাকবে। উপকূলের জেলাগুলিতেও ঘন্টায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে। সেই কারণে মৎস্যজীবীদের সোমবার পর্যন্ত সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *