বর্ষা সিরিজ

পূর্বা মুখোপাধ্যায়


হাত পেতে রাখি,
আষাঢ়স্য প্রথম দিবসে

আষাঢ়স্য প্রশম দিবসে
কত রেখা ধুয়ে যায়…

বাদলের হাওয়া তুমি সেদিনও অদৃশ্যে হেসেছিলে,
এখনও হেসেছ প্রাণে। সজলের চেনা ধারণায়
শুধু কিছু হিরণকিরণ মিশে আর্দ্রতা মুছেছে ।

অপেক্ষাই ভালো, ঢালো শূন্য হাতে সোনা…
কিরণরহস্য শেখে আমার জলের আলপনা।


অঝোরে পরাগে মিল হল… সুগন্ধ পাগল হল বাতাসের গায়ে
আরও কিছুক্ষণ… পাছে অন্ধকারে পাখি লেগে ভোর জেগে যায়…
তাই প্রেমনলিনীর আঁখি আধো বুজে যেতে যেতে ঝরে…
মাটিচাপা প্রত্নময়ী কাহিনির শোকের ভেতরে।

আরও পড়ুন: ত্রাসের‌ ‌কবিতা‌ ‌


তোমার সমস্ত মধু… তোমার সমগ্র মধু…
আমি শূন্য বাটি…
মাধুর্যধারণা দিয়ে শূন্যতার খিদে ভরে রাখি।
যোজনগন্ধার বনে অন্যমনে ফুটে আছে কথা…
নীরব। আনন্দনত। অর্থের মাধুর্যে শূন্যতা…
তোমার শূন্যের মধু। ক্ষুধাজন্মে মৃৎভাণ্ড উপচে ভেসে যায়…
মাধুর্যনিহত আমি ডুবে আছি চিরশূন্যতায়।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *