ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও ১১ হাজার অ্যাথলিটকে দেড় লক্ষের বেশি কন্ডোম দেওয়া হবে টোকিও অলিম্পিকে

Mysepik Webdesk: ২৩ জুলাই থেকে জাপানের টোকিওতে শুরু হতে চলেছে অলিম্পিক, যা নিয়ে প্রস্তুতি তুঙ্গে। করোনাকালে সফলভাবে অলিম্পিক আয়োজন করা আয়োজক কমিটির কাছে বড় এক চ্যালেঞ্জ। তবে, এর আগে অলিম্পিক ভিলেজ থেকে নিত্যনতুন খবর আসতে চলেছে। অলিম্পিকের রীতি অনুসারে, গেমসে অংশ নেওয়া অ্যাথলিটদের গেমস ভিলেজে থাকাকালীন বিনামূল্যে কন্ডোম দেওয়া হবে। এই সংখ্যাটা ১,৬০,০০০-এরও বেশি। তবে এ-নিয়ে সমস্যাও রয়েছে। আয়োজকরা অ্যাথলেটদের কন্ডোম ব্যবহার নিষিদ্ধ করেছিল।

আরও পড়ুন: মনোহর আইচ: পান্তা ভাতের জল, তিন জোয়ানের বল

আয়োজক কমিটি ঘোষণা করেছে যে, অ্যাথলিটরা অনুস্মারক হিসাবে কন্ডোম নিতে পারবেন। একমাত্র বাড়িতে গেলেই তা ব্যবহার করা যাবে। আয়োজক কমিটি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, কারণ কন্ডোম থাকার কারণে ক্রীড়াবিদরা যে কারও সংস্পর্শে আসতে পারে। করোনা অতিমারিকালে তাঁদের এই কাজে রুখতে হবে। আয়োজক কমিটি প্রসঙ্গত বলেছিল যে, “আমাদের উদ্দেশ্য ক্রীড়াবিদদের খেলাধুলা, গেম ভিলেজে কন্ডোম ব্যবহার নয়।” এর জন্য কমিটি ৩৩ পৃষ্ঠার একটি প্লেবুকও প্রকাশ করেছে। এতে শারীরিক যোগাযোগ কমানোর জন্য অ্যাথলিটদের বিভিন্ন ধরনের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: ‘পকেট হারকিউলিস’ হার মেনেছিলেন

এইডস সম্পর্কে সচেতনতা আনার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি) কন্ডোম বিতরণের ট্র্যাডিশন শুরু করেছিল। ১৯৮৮ সাল থেকে শুরু হয়েছিল এই নিরোধ বিতরণ। এবারও এই ঐতিহ্য বজায় রাখার জন্য অ্যাথলিটদের স্পোর্টস ভিলেজে থাকাকালীন বিনামূল্যে কন্ডোম দেওয়া হবে। তবে এবারের অলিম্পিকে তা তুলনায় অনেক কম সংখ্যায় দেওয়া হবে। গত রিও অলিম্পিকের সময় দেওয়া হয়েছিল ৪,৫০,০০০ কন্ডোম। ২০২১ অলিম্পিকে অংশ নেবেন এমন প্রায় ১১ হাজার অ্যাথলিটদের প্রত্যেকের জন্য প্রায় ১৪টি কন্ডোম দেওয়া হবে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

এই সংক্রান্ত আরও খবর:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *