পাঞ্জাবকে হারিয়ে লীগ টেবিলের শীর্ষে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স

Mumbai Indians

Mysepik Webdesk: আবু ধাবির শেখ জায়েদ ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব ও মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। এটি ছিল ১৩ তম আইপিএলের ১৩ তম ম্যাচ। দুই দলের কাছেই এই ম্যাচের গুরুত্ব ছিল অপরিসীম। কারণ দুই দলই নিজেদের আগের ম্যাচ হেরে এই ম্যাচ খেলতে নেমেছিল। এদিন টসে জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক লোকেশ রাহুল।

আরও পড়ুন: ‘শ্রী সিমেন্ট ইস্টবেঙ্গল ফাউন্ডেশন’ হিসাবে রেজিস্টার করাল ইস্টবেঙ্গল

এদিন আরও একবার বার্থ হলেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের প্রোটিয়া ওপেনার কুইন্টন ডি’কক। খাতা না খুলেই তিনি ফায়ার যান। তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে সূর্যকুমার যাদবও বেশিক্ষন স্থায়ী হননি। তিনি ৭ বলে ১০ রান করে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। তবে এদিন ব্যাট হাতে জ্বলে উঠেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। তিনি চার নম্বর উইকেটে ইশান কিশান সঙ্গে নিয়ে মূল্যবান ৬২ রান যোগ করেন। আগের ম্যাচে বড়ো রান পাওয়া ইশান কিশান এদিন ৩২ বল খেলে ২৮ রান করে আউট হন। আর অধিনায়ক রোহিত শর্মা ৪৫ বলে ৭০ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে আউট হন। সেই সঙ্গে রোহিত এদিন আইপিএলে ৫০০০ রানের ক্লাবে ঢুকে পড়লেন।

তবে রোহিত ফিরে যাওয়ার পর কাইরন পোলার্ড ও হার্দিক পান্ডিয়া দুজনে মিলে পাঞ্জাবে বোলিং দের নিয়ে ছেলেখেলা করেন। ১৫ ওভারে ১০২ থেকে পৌছালো ১৯১ রানে। মাত্র ৫ ওভারে ৮৯ রান যুক্ত করেন তারা দুজন মিলে। ২০ বলে চারটি ওভার বাউন্ডারি ও তিনটি বাউন্ডারি সাহায্যে ৪৭ রান করে অপরাজিত থাকেন পোলার্ড। অন্যদিকে তিনটি চার ও দুটি ছক্কা হাঁকিয়ে ১১ বলে ৩০ রান করে অপরাজিত থাকেন পান্ডিয়া। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে ১টি করে উইকেট নেন শেলডন কোটরেল ও মহম্মদ শামী ও গৌতম।

আরও পড়ুন: এই বছর আরও একটি শিরোপা জয় বায়ার্নের, এবারে জার্মান সুপার কাপ

১৯২ রানের লক্ষ্য মাত্রা নিয়ে ব্যাট করতে নামেন পাঞ্জাব। তবে বুমরাহ তার স্পেলের প্রথম ওভারে ফর্মে থাকা মায়াঙ্ক আগরওয়ালের উইকেট নিয়ে পাঞ্জাবকে প্রথম ঝটকা দেয়। এরপর করুণ নায়ারও খাতা না খুলেই প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। পাঞ্জাব অধিনায়ক কেএল রাহুল এদিন ১৯ বলে ১৭ রানে করে রাহুল চাহারের বলে আউট হন। ফলে চাপে পড়ে যায় পাঞ্জাব। এরপর নিকোলাস পুরান মুম্বইয়ের শক্ত বোলিং লাইন আপের সামনে কিছুক্ষন লড়াই করেন। ২৭ বলে ৪৪ রান করে আউট হন তিনিও। এরপর একে একে উইকেট হারাতে থাকে পাঞ্জাব। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান করে কিংস ইলেভন পঞ্জাব। যার ফলে ৪৮ রানের লম্বা ব্যবধানে পাঞ্জাবকে হারিয়ে জয়ী রোহিত শর্মার দল। মুম্বইয়ের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন জেমস প্যাটিনসন, জশপ্রীত বুমরাহ এবং রাহুল চাহার। একটি করে উইকেট পান কুণাল পান্ডিয়া এবং ট্রেন্ট বোল্ট।

ঝোড়ো ইংনিস খেলার সুবাদে ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হন কাইরন পোলার্ড। ৪ ম্যাচ খেলে দুটিতে জয় লাভ করে চার পয়েন্ট নিয়ে লীগ টেবিলের শীর্ষে উঠে এলো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *