জাতীয় অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপ: জারি গুচ্ছের নির্দেশিকা

Mysepik Webdesk: ক্রীড়াবিদরা জাতীয় অ্যাথলেটিক্স চ্যাম্পিয়নশিপে পদক জিতে আনন্দ প্রকাশ করতে পারবেন না। কিংবা ভিক্টরি স্ট্যান্ডের চারপাশে মেডেল গলায় পরে ঘুরতেও পারবেন না। পিছনে দাঁড়িয়ে থাকা সেনা জওয়ান বা পুলিশ সদস্যরা বিজয় শিঙা বাজাবেন না। শুধু তাই নয়, প্রধান অতিথি রঙিন মার্চ পাসের পরেও সালাম পাবেন না। তবে শান্তির প্রতীক হিসাবে ওড়ানো হবে পায়রা এবং রঙিন বেলুন। ভারতীয় অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন (এএফআই) জাতীয় এবং জোনাল চ্যাম্পিয়নশিপ পরিচালনার জন্য একটি স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রক্রিয়া (এসওপি) জারি করেছে, যার ফলে রাষ্ট্রীয় ইউনিটগুলিকেও একই নির্দেশিকাগুলি কার্যকর করতে হবে।

আরও পড়ুন: একটি দৌড় এবং ষাট বছরের আক্ষেপ

দু’দিন আগে এসএফআই-এর বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল যে, করোনার সংক্রমণের পরিপ্রেক্ষিতে সমস্ত সাবধানতা অবলম্বন করা হবে। খেলোয়াড়রা সরাসরি ওয়ার্মআপ এলাকা থেকে কল রুমে আসবেন। সেখান থেকেই তাঁরা ইভেন্টের জন্য ট্র্যাক বা ফিল্ডে পৌঁছে যাবেন। ইভেন্টের পরে তাঁরা সোজা বাইরে যাবেন। পদকপ্রাপ্তরা কল রুম থেকে তাঁদের পদক সংগ্রহ করবেন। এরপরে দেওয়া হবে সার্টিফিকেট। পুরো রেজাল্ট এফএফআই-এর ওয়েবসাইটে দেখা যাবে।

অ্যাথলিটরা পদক জয়ের পরে প্রকাশ্যে সেলিব্রেশন করতে পারবেন না। তাঁরা কারও সঙ্গে হাত মেলাতে পারবেন না। আলিঙ্গন করতে পারবেন না। ভিক্টরি স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে পদক নেওয়ার সুযোগও তাঁরা পাবেন না। অ্যাথলিটরা স্টেডিয়ামের মূল প্রবেশপথে স্যানিটাইজার টানেলের মধ্য দিয়ে যাবেন। টানেলের মাঝখানে দাঁড়িয়ে অ্যাথলিটরা নিজস্ব অ্যাক্সিস বা অক্ষে দাঁড়িয়ে ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরবেন। এরপরে ক্রীড়াবিদরা স্যানিটেশন টানেল থেকে ইভেন্টগুলি যেখানে হচ্ছে, সেই অঞ্চলে পৌঁছে যাবেন। এর পরে তাঁদের বায়ো অবস্থার মধ্যে থাকতে হবে।

আরও পড়ুন: গোষ্ঠ পালের ইন্টারভিউ: স্মৃতিমেদুর রূপক সাহা

খেলোয়াড়রা ইভেন্টের পর বায়ো সিকিওর অঞ্চল থেকে বেরিয়ে আসবেন। একবার সেখান থেকে বেরিয়ে এলে পুনরায় সেখানে প্রবেশের সুযোগ থাকবে না। প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে প্রত্যেক অ্যাথলেটকে নেগেটিভ করোনা রিপোর্ট দেখাতে হবে। তাঁদেরকে মাস্ক পরতে হবে। স্যানিটাইজার রাখতে হবে সঙ্গে। অ্যাথলেটদের ৩ ঘণ্টা আগে পৌঁছতে হবে ইভেন্ট-স্থলে।

অন্যান্য সিদ্ধান্ত
● ইভেন্ট অনুসারে প্রতিযোগিতার আয়োজন অনেকগুলি জায়গায় হবে। যাতে ক্রীড়াবিদদের ভিড় না হয়।
● প্রতিযোগিতাটি দুই-তিন দিনের বেশি সময়ে অনুষ্ঠিত হতে পারে।
● গ্রুপ গঠন করে বিভিন্ন দিনে ইভেন্টগুলি সংগঠিত করা হতে পারে।
● ফর্ম পূরণ করতে হবে গত চোদ্দ দিনের মেডিক্যাল রিপোর্ট লিখে।

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *