সংসদ ভেঙে ভোটের দিন ঘোষণা নেপালের রাষ্ট্রপতির, বিরোধীরা বললেন ‘মধ্যরাতের ডাকাতি’

Mysepik Webdesk: সংসদ ভেঙে ভোটের দিন ঘোষণা করলেন নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারি। তিনি নভেম্বরে নির্বাচন করবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। নেপালের প্রধান বিরোধী দল নেপাল কংগ্রেস রাষ্ট্রপতির এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছে। তারা বলেছে যে, তাঁর এই পদক্ষেপটি অসাংবিধানিক। তাঁরা রাষ্ট্রপতির এহেন সিদ্ধান্তকে সুপ্রিম কোর্টে চ্যালেঞ্জ করবেন। রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতি নেপাল কংগ্রেসসের প্রধান মুখ তথা প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী শের বাহাদুর দেউবা এবং কমিউনিস্ট পার্টি নেপাল-এর অন্যতম চেয়ারম্যান তথা প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা অলি, উভয়েরই দাবি প্রত্যাখ্যান করেছেন। উল্লেখ্য যে, নেপালের রাষ্ট্রপতি বিদ্যা দেবী ভাণ্ডারির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১২ এবং ১৯ নভেম্বর ভোট হবে।

আরও পড়ুন: ইসরাইল-প্যালেস্তাইন সংঘাত, একপেশে মিডিয়া

এর আগে রাষ্ট্রপতির কার্যালয় জানিয়েছিল— প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা অলির নেতৃত্বে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বা বিরোধী দল প্রমাণ করতে পারেনি যে, তাদের সরকার গঠনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা ছিল। গত বছরের ২০ ডিসেম্বর রাষ্ট্রপতি অনুরূপ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট সেই সময় এটিকে অসাংবিধানিক বলে খারিজ করেছিল। এবার সংসদ ভেঙে দেওয়ার নেপালের রাষ্ট্রপতির এই সিদ্ধান্তে দেশটিতে সমালোচনার বন্যা বইছে। বিরোধীরা বিদ্যা দেবীর এই সিদ্ধান্তকে কড়া ভাষায় সমালোচনা করে একে ‘মধ্যরাতের ডাকাতি’ বলেছেন। তাছাড়াও নেপালি কংগ্রেসের মুখপাত্র বিশ্বপ্রকাশ শর্মা বলেছেন, ‘‘মানুষ করোনা মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। এটাই কি মানুষকে দেওয়া উপহার?’’

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *