সাংবাদিক ড্যানিয়েল পার্ল হত্যা মামলায় নয়া মোড়, সিন্ধ হাইকোর্টের বিরুদ্ধে প্রমাণ উপেক্ষার অভিযোগ

Mysepik Webdesk: গত বুধবার মার্কিন সাংবাদিক ড্যানিয়েল পার্ল হত্যা মামলা এক নতুন মোড় নিয়েছে। এ-দিন পার্লের অভিভাভকের পরামর্শে তাঁর উকিল পাকিস্তানের শীর্ষ আদালতকে জানিয়েছে যে, পার্ল হত্যার মূল ষড়যন্ত্রকারী একজন আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী। উকিল তাঁর দাবির সমর্থনে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের একটি আদেশের উদ্ধৃতিও দিয়েছিলেন। ওয়াল স্ট্রিট জেনারেলের দক্ষিণ এশিয়ার প্রধান ৩৮ বছর বয়সি ড্যানিয়েল পার্ল ২০০২ সালে পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই এবং আল-কায়েদার মধ্যে সম্পর্ক তদন্ত করার সময় তাঁকে অপহরণ করে হত্যা করা হয়েছিল।

আরও পড়ুন: ভয়ংকর অগ্নিকাণ্ডের কবলে সৌদির জেড্ডা বন্দরের জাহাজ

সিন্ধ হাইকোর্ট

পার্লের অপহরণ এবং হত্যার দায়ে দোষ স্বীকার করার পরে ব্রিটিশ বংশোদ্ভূত আল-কায়েদা নেতা আহমেদ ওমর সাঈদ শেখ এবং তার তিন সহযোগীকে সাজা দেওয়া হয়েছিল। ‘দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন’-এর প্রতিবেদনে আইনজীবী ফয়সাল সিদ্দিকীর করা একটি হলফনামার উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে যে, বর্তমান আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে যে, এই অপরাধের মূল ষড়যন্ত্রকারী আহমেদ ওমর শেখ, যে একজন আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসী। যে মুক্তিপণ আদায়ের জন্য অপহরণের অন্যান্য মামলায় জড়িত ছিল।

আরও পড়ুন: পাক-চিন সেনাবাহিনীর মহড়া, কড়া নজর রাখছে ভারতও

ড্যানিয়েল পার্ল

উল্লেখ্য যে, গত এপ্রিলে সিন্ধ হাইকোর্টের দুই সদস্যের বেঞ্চ ওমর সাঈদ শেখের মৃত্যুদণ্ড প্রত্যাহার করে তাকে সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করে। সঙ্গে পার্ল হত্যা মামলায় শেখের তিন সহযোগী, যারা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ভোগ করছিল, তাদের বেকসুর খালাস করে দিয়েছিল বেঞ্চ। পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্টের তিন বিচারকের একটি বেঞ্চ এখন এই মামলার শুনানি করছে। অ্যাডভোকেট সিদ্দিকী সিন্ধ হাইকোর্টের রায় বাতিল করার জন্য সুপ্রিম কোর্টকে অনুরোধ করেছিলেন। সিন্ধ হাইকোর্টের এই রায়ে প্রমাণ উপেক্ষা করার অভিযোগ এনেছিলেন তিনি।

Similar Posts:

Facebook Twitter Email Whatsapp

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *